free web tracker

শেয়ার করুন:

ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ ভারতীয় বাংলা ছবির ফাটাকেস্ট রূপি মিঠুন চক্রবর্তী যেমন অনিয়মনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান আমাদের রেলমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও অনেকটা সেরকম। আর তাই তিনি যেখানে যাচ্ছেন, সবাই তটস্থ থাকছেন। কারণ কার কোথায় বদলি হয়, আর কার চাকরি যায়! এমনই কি দরকার না?

বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ রেলমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন। কারণ তিনি নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছেন। চোখে দেখে তাৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নিচ্ছেন। কারণ বাংলাদেশের প্রতিটি সরকারি ক্ষেত্রে যে অনিয়মের পাহাড় তৈরি হয়েছে সেগুলো ভাঙ্গার দায়িত্ব যিনি নিয়েছেন, তিনি আর কেও নন আমাদের যোগাযোগ ও রেলমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। প্রতিদিন জনগণ সংবাদপত্র কিন্বা টিভির পর্দায় অপেক্ষায় থাকেন, কখন রেলমন্ত্রীর পরিদর্শন আসে। সরকারি অফিস-আদালত, কর্মক্ষেত্রে যে অনিয়মের পাহাড় জমেছে তা কোন মন্ত্রী কখনও এমন করে দেখেননি। আর এটাই জনপ্রিয়তার একটি বড় ফ্যাক্টর। মানুষ চাই দেশ থেকে দুর্নীতি দূর হোক, সকল অনিয়ম-অনাচার, স্বেচ্ছাচারিতা নিপাত যাক। সব মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর যদি এমনভাবে কাজ করতেন তাহলে কি দেশের ব্যাপক পরিবর্তন আসতো না?

আজ সঠিক সময়ে ট্রেন আসবে!

লালমনিরহাট থেকে ঢাকা সর্বোচ্চ ৯ থেকে ১০ ঘণ্টা সময় নির্ধারিত থাকলেও ১৬ থেকে ১৮ ঘণ্টা ভ্রমণ করতে হয় যাত্রীদের। ঈদ বা বিশেষ সময়ে এ ট্রেনের অবর্ণনীয় দুর্গতির কথা বর্ণনা দেয়ারও অযোগ্য। আজ সঠিক সময়ে আসবেই : লালমনিরহাট রেল বিভাগের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সহাস্যে বললেন, আজ বৃহস্পতিবার ৬ সেপ্টেম্বর লালমনি এক্সপ্রেস সঠিক সময়ে আসবেই। কিভাবে এত নিশ্চিত করে বলছেন? এমন প্রশ্ন করতেই তিনি বললেন, ‘রেলমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের স্যার’ লালমনি এক্সপ্রেসে ঢাকা থেকে আজ লালমনিরহাট আসছেন, তাই ইনশাআল্লাহ ট্রেন কোথাও দেরি হবে না। এ কর্মকর্তা আরও বললেন, বুধবার ৫ সেপ্টেম্বর লালমনিরহাট থেকে ঢাকার উদ্দেশে লালমনি এক্সপ্রেস নির্ধারিত সময় সকাল ১০টা ৪০ মিনিটেই ছেড়ে গেছে। খুশিতে ডগমগ এ কর্মকর্তা স্টেশন এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ তদারকিতে ব্যস্ত হয়ে পড়লেন।

লালমনিরহাট রেলের বিভাগীয় ট্রেন কন্ট্রোল রুমে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মঙ্গলবার ৪ সেপ্টেম্বর লালমনি এক্সপ্রেসের লেট ছিল এক ঘণ্টা ৪০ মিনিট। এর আগে ৩ সেপ্টেম্বর ২ ঘণ্টা ৫ মিনিট, ২ সেপ্টেম্বর ১ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট, ৩১ আগস্ট প্রায় ৩ ঘণ্টা, ৩০ আগস্ট ট্রেনটির লেট ছিল প্রায় ৪ ঘণ্টা।
শুধু লালমনি এক্সপ্রেসই নয় : লালমনিরহাট রেল বিভাগীয় সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা (এটিএস) মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানালেন, ট্রেন লেটের আরও ভয়াবহ তথ্য। তিনি বললেন, শুধু লালমনি এক্সপ্রেসই নয়, রংপুর টু ঢাকা যাতায়াতকারী রংপুর এক্সপ্রেস, দিনাজপুর টু ঢাকাগামী একতা এক্সপ্রেস ও দ্রুতযান ট্রেনগুলো সঠিক সময়ে চলাচল করতে পারছে না। এর কারণ হিসেবে এ রেল কর্মকর্তা জানালেন, এ বিভাগ থেকে চলাচলকারী এ চারটি ট্রেনের ইঞ্জিন সংকট প্রধান কারণ। এ ছাড়া লোকবলের অভাবে সিডিউল স্থানে ট্রেনগুলো ক্রসিং করানো যায় না। ঢাকায় ট্রেনগুলো পৌঁছার পর সেখান থেকে ফ্রেশ ইঞ্জিন দেয়ার কথা থাকলেও তা কোনদিনও দেয়া হয়নি। সর্বোপরি সংশ্লিষ্ট সবাই তৎপর থাকলে সঠিক সময়ে ট্রেন চালানো সম্ভব বলেও এ কর্মকর্তা দাবি করেন।

মন্ত্রীকে প্রটোকল দিতে

যোগাযোগ ও রেলমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে প্রটোকল দিতে লালমনিরহাট রেল বিভাগীয় ম্যানেজার (ডিআরএম), বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিএস), বিভাগীয় প্রকৌশলী (ডিইএন), বিভাগীয় যান্ত্রিক প্রকৌশলী (ডিএমই), বিভাগীয় সংকেত প্রকৌশলী (ডিএসটিই), রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর বিভাগীয় কমান্ড্যান্টসহ এক ডজন প্রথম শ্রেণীর রেল কর্মকর্তা বুধবার সকালে লালমনি এক্সপ্রেসে ঢাকা রওনা দিয়েছেন। এসব কর্মকর্তার সঙ্গে আরও রয়েছেন তাদের ব্যক্তিগত সহকারী, পিয়ন, আর্দালি এবং ২০-২২ জনের বিশাল লটবহর।

বুধবার ৫ সেপ্টেম্বর রাতে তারা ঢাকায় মন্ত্রীকে রিসিভ করবেন বলে লালমনিরহাট ছেড়েছেন মর্মে লালমনিরহাট রেল বিভাগীয় অফিসের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এসব কর্মকর্তাকে বহন করতে লালমনি এক্সপ্রেসে প্রথম শ্রেণীতে অতিরিক্ত বগি সংযোজন করতে হয়েছে বলেও সূত্রটি জানায়। সূত্র মতে, লালমনিরহাট থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে আবার লালমনিরহাট যাতায়াতের জন্য এতজন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর টিএ-ডিএ বিল বাবদ সরকারি কোষাগার থেকে ব্যয় হবে কয়েক লাখ টাকা। অতীতে কখনও কোন মন্ত্রীকে রিসিভ বা প্রটোকল দেয়ার জন্য বিশাল লটবহর নিয়ে প্রায় এক হাজার কিলোমিটার যাতায়াত করেননি হোস্ট এলাকার কোন সরকারি অফিসার। দুর্নীতির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণাকারী মন্ত্রীকে প্রটোকলের নামে সরকারের এ বিরাট অংকের টাকার অপচয় কিভাবে নেবেন ওবায়দুল কাদের, তা দেখার অপেক্ষায় আছেন অনেকেই।

মন্ত্রী আসবেন তাই

এদিকে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের লালমনিরহাট আসার খবর শুনে ৩-৪ দিন ধরে লালমনিরহাট রেলস্টেশন এলাকা, ডিআরএম বিল্ডিং, আশপাশের পাকা রাস্তা এবং স্টেশনের ধারে-কাছের আরও কিছু এলাকা ধোয়ামোছা, সংস্কার, বাতি লাগানো, রেললাইনে পাথর ফেলা, লাইন পরিষ্কার করাসহ শত শত রেলকর্মী রাত-দিন কাজ করছেন। মন্ত্রীর চোখে যাতে কোন অনিয়ম, অপরিষ্কার ধরা না পড়ে, এজন্য পুরো রেল বিভাগ আদাজল খেয়ে কাজে নেমেছে। লালমনিরহাট রেলস্টেশনে কাজের ধুম দেখে প্লাটফরমে উপস্থিত অনেক যাত্রী মন্তব্য করলেন, ওবায়দুল কাদের রেলমন্ত্রী তো নয় যেন আলোচিত ভারতীয় বাংলা সিনেমার ‘ফাটাকেস্ট’, ওই সিনোমায় ফাটাকেস্ট মিঠুন চক্রবর্তী যেভাবে তোলপাড় ফেলে দিয়েছিলেন, তেমনি দুর্নীতিতে আকণ্ঠ ডুবে যাওয়া রেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে আমাদের রেলমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্ভবত মূর্তিমান আতংক হিসেবে অবতীর্ণ হয়েছেন বলে যাত্রীরা মন্তব্য করছিলেন। তবে সাথে সাথে অনেকে এও বলেছেন, শুধু রেলমন্ত্রী নয় অন্যান্য মন্ত্রীরাও যদি এমন হতেন, তাহলে দেশের দৃশ্যপট হয়তো পাল্টে যেতো।


সতর্কবার্তা:

বিনা অনুমতিতে দি ঢাকা টাইমস্‌ - এর কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ, যে কোন ধরনের কপি-পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, এবং কপিরাইট আইনে বিচার যোগ্য!

September 7, 2012 তারিখে প্রকাশিত

আপনার মতামত জানান -

Loading Facebook Comments ...


89 জন মন্তব্য করেছেন

মন্তব্য লিখতে লগইন করুন

আপনি হয়তো নিচের লেখাগুলোও পছন্দ করবেন

সারাদেশে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর
জেনে নিন বৈবাহিক জীবনে নারী-পুরুষের সুখের রহস্য
বাংলাদেশে বেডরুম আর রান্নাঘর ভারতে! একইসঙ্গে দুই দেশের নাগরিক এক রেজাউল মন্ডল কাহিনী
এক বৃদ্ধা মা’কে বস্তায় ভরে ফেলে গেছে তারই সন্তান!
ঈদে উপলক্ষে রাজধানীসহ সারাদেশে বাড়ছে বিভিন্ন অপরাধ চক্রের অপতৎপরতা
বহুল আলোচিত সেই তালপট্টি এখন ভারতের!
বাংলাদেশ-ভারত সমুদ্রসীমা মামলায় বাংলাদেশের পক্ষে রায়: সাড়ে ১৯ হাজার বর্গ কিমি পেলো বাংলাদেশ
আজ বাংলাদেশ-ভারত সমুদ্রসীমা মামলার রায় ঘোষিত হবে
সাবধান! অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহার শারীরিক ও মানসিক সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে
ফুলশয্যার রাতের জন্য নারীদের যে প্রস্তুতি থাকা প্রয়োজন
এবার কসমেটিকস ব্যবসায় নামলেন সাকিব-শিশির!
আজ মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার রায়
Close You have to login

Login With Facebook
Facility of Account