IOT কী এবং এটি কিভাবে কাজ করবে?

মানুষের দৈনন্দিন জীবনকে আরো আরামদায়ক এবং সহজ করতে IOT এর ভূমিকা থাকবে অতুলনীয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যত দিন যাচ্ছে ততই প্রযুক্তির ছোয়ায় আমাদের জীবনের গতিপথ পাল্টে যাচ্ছে। মানুষের দৈনন্দিন জীবনকে আরো আরামদায়ক এবং সহজ করতে IOT এর ভূমিকা থাকবে অতুলনীয় আজ আমরা জানবো IOT কী এবং এটি কিভাবে কাজ করে।

প্রথমেই জেনে নিই IOT এর পূর্ণরুপ। IOT এর পূর্ণরুপ হল Internet Of Things
যখন অনেক গুলো ডিভাইস একটা আরেকটার সাথে ইন্টারনেট দ্বারা যুক্ত থাকবে এবং তাদের মধ্যে ডাটা আদান প্রদান হবে, সেই সিস্টেমটাকেই বলা হবে আইওটি (IOT) সেই ডিভাইসগুলো হতে পারে আপনার বাসার টিভি, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন, বাথরুমের কল, দরজার লক থেকে শুরু করে একটা শহরের ট্রাফিক সিগন্যাল, স্ট্রিটলাইট সিস্টেম, GPS ইত্যাদি। এক কথায় বলতে গেলে প্রায় সমস্ত ডিভাইসকেই এর আওতায় আনা সম্ভব।

যেভাবে কাজ করবে IOT :

কিছু ইলেকট্রনিক ডিভাইস, সেন্সর আর সফটওয়ারের সমন্বয়ে একটি নেটওয়ার্কিং সিস্টেম তৈরির মাধ্যমে এই প্রযুক্তি মুলত কাজ করবে। সেন্সর গুলো মানুষ তথা যেকোনো বস্তুর গতিবিধির ভিত্তিতে একটা তথ্য দেয় এবং সেটা প্রসেস হয়ে একটা ডিভাইস থেকে আরেকটা ডিভাইসে প্রেরণ করে। এভাবেই চলতে থাকে একটা আইওটি সিস্টেম। নেটওয়ার্কিং প্রযুক্তির উন্নতির ফলে এই নতুন স্মার্ট ডিভাইসগুলা ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত হতে পারে।

কিন্তু, ফ্রিজকে ইন্টারনেটে যুক্ত করে লাভটা কী, ওর কি ফেইসবুক একাউন্ট হবে নাকী? তা না, তবে সুবিধাটা হলো এই সব যন্ত্রপাতি এখন নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করতে পারবে, আর অন্যান্য অনেক কিছুর সাথে যোগাযোগ করে স্মার্ট সিদ্ধান্ত নিতে পারবে। ধরুণ আপনি বাজারে গিয়েছেন কিন্তু ফ্রিজে কি কি রাখা আছে আপনার মনে নেই। তাই বাজার করতে একটু সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। কিন্তু আপনার ফ্রিজটি যদি IOT কানেকটেড থাকে তাহলে বাজার থেকেই আপনার ফ্রিজে কি কি রাখা আছে নির্দিষ্ট অ্যাপসের মাধ্যমে সেই তথ্য পেয়ে যাবেন। আর এই তথ্য আপনাকে সরবরাহ করবে ফ্রিজ নিজেই।

ধরুন আপনার দরজার লক IOT সিস্টেমের আওতায় আছে। হঠাৎ কোন জরুরী কাজে বাইরে চলে এসেছেন। তখন মনে পড়লো আপনার রুম লক করতে ভুলে গেছেন। নো টেনশন, অনেক দুরে বসেই নির্দিষ্ট অ্যাপসের মাধ্যমে আপনার রুম লক করতে পারবেন। এলার্মের শব্দে ভোর ৫ টায় ঘুম থেকে উঠলেন। এর পরবর্তিতে আপনি সাওয়ার নিবেন গরম পানিতে। কিন্তু হিটার পানি গরম করতে ৩০ মিনিট সময় নিয়ে থাকে। এই কাজটি আপনি ঘুম থেকে উঠার আগেই আপনার হিটার IOT কানেকটেড থাকায় আপনার জন্য পানি গরম করে রাখবে। এদিকে সময় মত আপনার জন্য কফি বানিয়ে রাখবে অটোমেটেড কফি মেকার। সাওয়ার সারতে সারতেই হয়ত আপনার বাথরুম আপনাকে গান শুনিয়ে দিবে আপনার পছন্দ অনুযায়ী।

এই সমস্ত কাজগুলো IOT সিস্টেমের মাধ্যমে হয়ে থাকবে। এমনকি আপনি অফিসে প্রবেশ করার সময় ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়ে গেট খুলতে হচ্ছে। অথচ এই ফিঙ্গার প্রিন্টের মাধ্যমেই আজ আপনার হাজিরা শিটে প্রেজেন্ট হয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে এই IOT এর ব্যবহার এত ব্যাপক হবে যে প্রায় সব ডিভাইসগুলোই IOT কানেক্টেড হয়ে যাবে। আগামী ২০২২ সালের মধ্যে আরো প্রায় ১ ট্রিলিয়ন সেন্সর ইন্টারনেট এর সাথে কানেকটেড হবে অর্থাৎ আই ও টি আরো সম্প্রসারিত হবে।

Advertisements
Loading...