ভারতে দুধের চেয়ে গরুর মূত্রের দামই বেশি!

গরু আমাদের মা, তাই গোমূত্র সংগ্রহের জন্য সারারাত জেগে থাকতে আমার তেমন কিছুই মনে হয় না

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সত্যিই ভাবতে অবাক লাগে! ভারতে নাকি গরুর দুধের থেকে গরুর মূত্রের দামই বেশি! দেশটির রাজস্থানে গোমূত্রের চাহিদা এতোটাই বেশি যে দুধের চেয়েও বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে!

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, ভারতের রাজস্থানে গোমূত্রের চাহিদা এতোটাই বেশি যে দুধের চেয়েও বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। রাজ্যটির পাইকারী বাজারে দুধ লিটার প্রতি বিক্রি হচ্ছে ১৫-৩০ টাকা। অথচ মূত্র বিক্রি হচ্ছে লিটার প্রতি ২২-২৫ টাকা দরে!

দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাজারে গোমূত্রের ব্যাপক চাহিদা থাকায় যেনো ভাগ্য খুলে গেছে স্থানীয় পশুপালকদের।

গত ২০ বছর ধরে দুধ বিক্রি করে আসা জয়পুরের কৈলেশ গুজ্জরের উপার্জন ৩০% বেড়ে গেছে গোমূত্র বিক্রি শুরু পর হতে! মাটিতে পড়ার পূর্বেই গোমূত্র সংগ্রহের জন্য তিনি সারারাত জেগে গোয়াল ঘরে অবস্থান করেন!

কৈলেশ বলেছেন, গরু আমাদের মা, তাই গোমূত্র সংগ্রহের জন্য সারারাত জেগে থাকতে আমার তেমন কিছুই মনে হয় না।

জয়পুরের অপর একটি গরুর খামার হতে ইতিমধ্যেই গোমূত্র কেনা শুরু করেছেন ওম প্রকাশ মীনা নামে এক দুধ বিক্রেতা। তিনি বলেছেন, আমি ৩০ হতে ৫০ টাকা দরে এক লিটার গোমূত্র বিক্রি করি।

ওম প্রকাশ মীনা বলেছেন, যেসব কৃষক কীটনাশকের পরিবর্তে গোমূত্র ব্যবহার করে, তাদের কাছেও গোমূত্রের চাহিদা রয়েছে। তারা তাদের ফসলকে পোকামাকড়ের আক্রমণ হতে রক্ষা করতে গোমূত্র ছিটিয়ে দেন। অনেকই আবার ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও গোমূত্র ব্যবহার করে বলে রেওয়াজ রয়েছে।

জানা গেছে, দেশটির উদয়পুরে সরকার পরিচালিত কৃষি ও প্রযুক্তির বিষয়ক মহরন প্রতাপ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিমাসে জৈব কৃষি প্রকল্পে ৩০০-৫০০ লিটার গোমূত্র ব্যবহার করে থাকে। প্রতিমাসে তারা ১৫ হতে ২০ রুপি লিটার দরে গোমূত্র কেনে।

বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য উমা শংকর বলেছেন, কৃষকদের বাড়তি আয়ের উৎস হলো এই গোমূত্র। রাজস্থানের গোপালনমন্ত্রী ওটারাম দেবাসি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, রাজ্য সরকার পরিচালিত ২ হাজার ৫৬২টি কেন্দ্রে প্রায় ৮ লাখ ৫৮ হাজার ৯৬০টি গরু রয়েছে।

উল্লেখ্য, হিন্দু বিশ্বাসীরা গরুকে পবিত্র দেবতা হিসেবে মনে করেন। যে কোনো অসুখ থেকে সুস্থ করার উপাদান গোমূত্রের মধ্যে আছে বলেই তাদের বিশ্বাস। হিন্দুদের মধ্যে গরুপূজারিরা দাবি করেন যে, গোমূত্র পানে মানব শরীরের প্রভূত উন্নতি সাধিত হয়। হিন্দু পুরোহিতদের মতে, “এই মহাবিশ্বে ২টি জিনিষ একমাত্র বিশুদ্ধ, একটি হলো গঙ্গা মায়ের পবিত্র জল ও অন্যটি হলো গোমাতার পবিত্র মূত্র। এভাবেই গোমূত্র হিন্দু ধর্মালম্বিদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়েছে। যে কারণে দিন দিন এর চাহিদা বাড়ছে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...