কিভাবে বুঝবেন আপনার সন্তানের বুদ্ধিমত্তা অন্যদের থেকে এগিয়ে

অনেক শিশু খুব কম বয়সেই যথেষ্ট বুদ্ধি সম্পন্ন হয় আবার অনেক শিশুর একটু দেরিতেই বুদ্ধি বিকশিত হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পিতা-মাতার সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশা হচ্ছে তার সন্তান অন্যদের থেকে একটু বেশি বুদ্ধি সম্পন্ন হোক। শিশুদের বুদ্ধি বিকাশের নির্দিষ্ট সময় থাকলেও অনেক শিশু খুব কম বয়সেই যথেষ্ট বুদ্ধি সম্পন্ন হয় আবার অনেক শিশুদের একটু দেরিতেই বুদ্ধি বিকশিত হয়। তবে অনেক সময় পুষ্টি হীনতায় এবং সঠিক পরিবেশের অভাবে শিশুদের বুদ্ধি বিকশিত হতে সময় লাগে।

আজ আমরা জানবো আমাদের শিশুদের বুদ্ধি কতটা বিকশিত হয়েছে তা জানার কিছু উপায়।

১। সর্বদা প্রশ্ন করাঃ

অজানাকে জানার জন্য শিশুরা নানা ধরনের প্রশ্ন করতেই পারে। যে শিশুর মধ্যে এই প্রশ্ন করার আগ্রহ রয়েছে, সেই শিশুর অবশ্যই বুদ্ধিমত্তা দ্রুত বিকশিত হচ্ছে। তাই আপনার সন্তানের মধ্যে এই প্রশ্ন করার অভ্যাস আছে কি না লক্ষ্য করুন। কখনই শিশুদের প্রশ্ন করাকে বিরক্ত মনে করবেন না বা এমন আচরণ করবেন না যেন শিশুরা বুঝতে পারে তার প্রশ্ন করাতে আপনি বিরক্ত হচ্ছেন। সর্বদা তাদের প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন এবং জানার আগ্রহ বাড়াতে উৎসাহিত করুন।

২। কোন বিষয় মনে আছে কি না যাচাই করাঃ

আপনার সন্তানকে নতুন নতুন যেসব বিষয় শিখাবেন, কিছুক্ষন পর বা কিছু দিন পর সেই বিষয়ে তার কতটুকু মনে আছে তা যাচাই করুন। যেমন, কোন মানুষ বা নতুন কোন জিনিসের সাথে পরিচয়ের পর কিছুদিন পর সেই ব্যক্তিকে বা জিনিসটি দেখিয়ে আপনার শিশুর কাছ থেকে জানতে চান। যদি সে সঠিকভাবে সেই ব্যক্তি বা জিনিস সম্পর্কে বলতে পারে, তবে বুঝবেন আপনার সন্তানের মেধা দ্রুত বিকশিত হচ্ছে।

৩। কথা বলার প্রতি আগ্রহঃ

আপনার সন্তান কথা বলার প্রতি কতটা আগ্রহী তা লক্ষ্য করুন। আপনি তাকে নতুন নতুন শব্দ শিখাতে পারেন। সে আপনার কথা পুনরাবৃতি করছে কি না তা দেখুন। যদি আপনার সন্তান আপনার কথাকে পুনরাবৃতি করার চেষ্টা করে তবে বুঝবেন তার বুদ্ধি দিপ্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

৪। অজানা কোন কাজের প্রতি আগ্রহ প্রকাশঃ

অনেক শিশু রয়েছে যারা তাদের নতুন খেলনা সামগ্রী সমস্ত জয়েন্ট থেকে খুলে খুলে দেখার চেষ্টা করে এবং পুনরায় নিজে নিজেই সেই খোলা অংশগুলো সেট করার চেষ্টা করে। অনেক পিতামাতা বিষয়টিকে খারাপ চোখে দেখে এমনকি অনেক সময় শিশুদের এই আচরণের জন্য রাগ করে থাকেন। ভুলেও এমন করবেন না। আপনার শিশুর মধ্যে এমন গুন থাকলে সেটা অবশ্যই ভাল বুদ্ধিমত্তার লক্ষণ।

Advertisements
Loading...