The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

যে রাষ্ট্রনায়কদের প্রমাণ করতে হয়েছিল তারা মরেননি!

আচমকা এমন বিপদের মুখোমুখি হতে হয়েছে বিশ্বের বহু রাষ্ট্র বা সরকারপ্রধানকে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন কিছু রাষ্ট্রনায়ক রয়েছেন যাদের জীবদ্দশায় নিজের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে! তাও সেই ব্যক্তি যখন কোনও প্রভাবশালী রাষ্ট্রনায়ক! কিভাবে তারা প্রমাণ করলেন তারা মরেননি।

যে রাষ্ট্রনায়কদের প্রমাণ করতে হয়েছিল তারা মরেননি! 1

আচমকা এমন বিপদের মুখোমুখি হতে হয়েছে বিশ্বের বহু রাষ্ট্র বা সরকারপ্রধানকে। এমনকি এই তালিকা হতে বাদ পড়েননি খোদ রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও! এমন পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন মধ্য আফ্রিকার দেশ গেবনের প্রেসিডেন্ট আলি বঙ্গোর। ৬ সপ্তাহ আগে অসুস্থ হয়ে পড়ার পর সম্প্রতি প্রকাশ্যে আসতে হয়েছে তাকে। এর ঠিক একদিন আগেই নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারিকে নিজের মৃত্যু এবং ছদ্মবেশীর গুজব খণ্ডাতে হয়।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন থেকে শুরু করে আলি বঙ্গো পর্যন্ত এমন তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হওয়া আরও কয়েকজন রাষ্ট্রনেতার ঘটনা তুলে ধরা হলো আজকের এই প্রতিবেদনে:

ভ্লাদিমির পুতিন

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ২০১৫ সালে একবার সপ্তাহ দুয়েকের জন্য হাওয়া হয়ে যান। এই সুযোগে গুজব ডালপালা মেলতে শুরু করে তার বিরুদ্ধে। তখন কারও কারও দৃঢ় বিশ্বাস জন্মায় পুতিনের মৃত্যু হয়েছে। কেও আবার বলতে থাকেন, বাজে রকমের প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন। অবশ্য আরেকটি দল বলতে শুরু করে যে, শৈশবের স্মৃতি বিজড়িত সুইজার‍ল্যান্ড ভ্রমণে গেছেন পুতিন। আবার জ্বর বা পিঠে ব্যথার মতো রোগের আশঙ্কাও করেন অনেকেই। তবে লোকমুখে ছড়িয়ে পড়া এসব গুজবের স্পষ্ট কোনো বক্তব্য দেওয়ার চেষ্টা করেননি দেশটির কর্মকর্তারা। রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিন হতে শুধু এতোটুকু বলা হয় যে, ‘এই বিষয়টি (গুজব) অবসান ঘটেছে।’

কিম জং উন

কিম জং উনকে বর্তমানে সবাই চেনেন। ২০১২ সালে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন খুন হয়েছেন বলে গুজব ছড়িয়ে পড়ে। রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে তার দায়িত্বগ্রহণের অল্প সময়ের মধ্যেই এই গুজব ছড়িয়ে পড়েছিলো। চীনা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ওয়েইবো’তে এই সংক্রান্ত প্রচুর পোস্টও আসতে শুরু করে। পরে জানা যায় যে, টুইটারে দেখতে বিবিসি’র মতো একটি অ্যাকাউন্ট হতে ওই গুজবের সূত্রপাত হয়। ওই অ্যাকাউন্টে কিম জং উনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়। তবে ওই গুজবের অর্ধযুগ পর এখনও দোর্দণ্ড প্রতাপে দেশ পরিচালনা করে আসছেন কিম জং উন, যা আমরাও জানি। এ বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালের জুন মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ একাধিক প্রভাবশালী বিশ্বনেতাদের সঙ্গে তার বৈঠকও হয়েছে।

রবার্ট মুগাবে

২০১৬ সালে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট থাকাকালে একবার দুবাই গিয়েছিলেন রবার্ট মুগাবে। গুজব ছড়িয়ে পড়ে যে, গুরুতর অসুস্থ হয়ে দুবাইয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটেছে। পরে দেশে ফিরে মুগাবে বলেন যে, হ্যাঁ! সত্যিই আমি মারা গিয়েছিলাম। তবে বরাবরের মতো আবার বেঁচেও উঠেছি!

মুগাবে জানান, পারিবারিক কারণে দুবাই গিয়েছিলেন। টানা ৩০ বছর ধরে জিম্বাবুয়ে শাসন করেছেন এই রাজনীতিবিদ। অবশ্য ২০০৯ সালেও একবার সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে রয়েছেন বলে গুজব ছড়িয়ে পড়েছিলো।

জিয়াং জেমিন

কিছুদিন জনসমক্ষে দেখা না যাওয়ার কারণে ২০১১ সালে সাবেক চীনা প্রেসিডেন্ট জিয়াং জেমিনের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বিষয়টি নাকচ করে দেওয়া হলেও দেশটির জনগণ সরকারি মাধ্যমে আস্থা রাখতে পারছিলেন না। যে কারণে সার্চ ইঞ্জিনগুলোর অবস্থান নিয়েও অনেকের মধ্যে শঙ্কা তৈরি হয়েছিলো। গুজব এতোটাই ডালপালা মেলে যে, শেষ পর্যন্ত সরাসরি সম্প্রচারিত একটি টিভি অনুষ্ঠানে হাজির হন এবং গুজবকে মিথ্যা প্রতিপন্ন করেন তিনি। তবে টিভি পর্দায় তাকে বেশ দুর্বল দেখাচ্ছিলো। ১৯৮৯ হতে ২০০২ সাল পর্যন্ত চীনা প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করে জিয়াং জেমিন।

আয়াতুল্লাহ খামেনি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি’র অন্তত দুই বার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। প্রথম দফায় ২০০৭ ও দ্বিতীয় দফায় ২০০৯ সালে এই গুজব রটে। দুইবারই মাইকেল লেদেন নামের এক মার্কিন নাগরিক এই গুজব ছড়িয়ে দেন।

অথচ আয়াতুল্লাহ খামেনি এখনও জীবিত রয়েছেন এবং ইরানের সর্বোচ্চ নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নিয়মিত তিনি মিডিয়ার সামনেও আসেন।

আলি বঙ্গো

সৌদি আরবে ২৪ অক্টোবর একটি সম্মেলন চলাকালে পড়ে যাওয়ায় আলি বঙ্গোর মৃত্যু নিয়ে গুজব ছড়িয়ে পড়ে। গেবনের প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ঠ সূত্রের মতে, তিনি স্ট্রোকের শিকার হন। অবশ্য প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হতে এই বিষয়ে বিস্তারিত তেমন কিছুই জানানো হয়নি। শুধু বলা হয়েছিল যে, তার রক্তক্ষরণ হয়েছে। যে কারণে গুজব ছড়ায় যে তিনি মারা গেছেন। এতে করে বাধ্য হয়ে গত সপ্তাহে জীবিত থাকার প্রমাণ দিতে হয়েছে তাকে।

বঙ্গোর বেঁচে থাকার প্রমাণ হিসেবে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়। তবে এতে কোনও অডিও নেই। ভিডিওতে দেখা যায়, নীল-সাদা আলখেল্লা পরে মরক্কোর বাদশাহ মোহাম্মদ ৬ষ্ঠ’র সঙ্গে কথা বলছেন তিনি। এক পর্যায়ে বঙ্গো দুধের গ্লাসে চুমুকও দেন।

মুহাম্মাদু বুহারি

সম্প্রতি নাইজেরিয়ায় গুজব ছড়িয়ে পড়ে যে দেশটির প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি মারা গেছেন। দেশ চালাচ্ছেন তার মতো দেখতে কোনও এক ছদ্মবেশী! বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন ছবি ও তথ্য ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে। পোস্টগুলো শেয়ার করেন একাধিক রাজনীতিবিদ। তবে সম্প্রতি বুহারি জনসমক্ষে এসে বললেন, ‘আমিই হলাম আসল বুহারি।’

জানা যায়, ২০১৫ সাল হতে নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্টের দায়িত্বপালন করছেন বুহারি। আগামী ফেব্রুয়ারিতে আবারও প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বুহারি। ২০১৭ সালে ৩ মাসের জন্য তিনি স্বাস্থ্য ছুটিতে ছিলেন। তবে সুস্থ হয়ে এসে জানান, খুব বড় কোনও রকম অসুখ ছিলে না তার। তবে সেই বছরের শেষ দিক থেকেই বুহারির মৃত্যুর গুজব চারদিকে ছড়িয়ে পড়তে থাকে সামাজিক মাধ্যমে। মূলত বুহারির পূর্ববর্তী প্রেসিডেন্ট জোনাথন গুডলাকের সহযোগীরা এই গুজব ছড়ানোর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

সে সময় সামাজিক মাধ্যমে পোস্টগুলোতে বলা হয়, তার ‘ক্লোন’কৃত কেও বর্তমানে দেশ চালাচ্ছেন। ফেসবুক ইউটিউব টুইটারে ছড়িয়ে পড়া এমন গুজব দেখা হয়ে যায় ৫ লাখেরও বেশি বার।

এই গুজবটি ছড়িয়ে দেন মূলত ইনডেজিনিয়াস পিপল অব বিয়াফ্রার সভাপতি নামদি কানুও। দুটি ছবি দিয়ে তিনি মন্তব্য করেন যে, বুহারি ডানহাতি, তবে কেনো তিনি বাম হাত ব্যবহার করছেন। অর্থাৎ তিনি ‘আসল’ বুহারি নন। এই গুজব ছড়ানোর ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়েছে হলিউডের বিখ্যাত চলচ্চিত্র ‘ফেসঅফ’র একটি দৃশ্যও।

জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সম্মেলনে অংশ নেন পোল্যান্ডে অবস্থান করা বুহারি। সেখান থেকেই ভিডিও বার্তায় নিজের জীবিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেন নাইজেরীয় প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন যে, ‘আমার মৃত্যুর গুজব ছড়ানোর বিষয়টি খুবই দুঃখজনক একটি বিষয়। আসলে অনেকেই চেয়েছিল যেনো আমি ‍অসুস্থ অবস্থায় মৃত্যুবরণ করি। অনেকেই ভাইস-প্রেসিডেন্টের সঙ্গে যোগাযোগও করেছেন। তবে আমি এই বিষয়টি নিশ্চিত করছি, আমিই ‘আসল’ বুহারি।’

Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx