The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বাজারে এসেছে সবার চালানোর উপযোগী তিন চাকার ইলেকট্রিক বাইক

এবার আকিজ মটরস বাজারে আনলো তিন চাকার ইলেকট্রিক বাইক

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ইচ্ছে মত যাতায়াত করার জন্য শহর গ্রামে বাইসাইকেল এবং মটরসাইকেলের কদর রয়েছে অনেক। তবে মটর সাইকেল চালাতে প্রয়োজন জ্বালানী। অন্যদিকে বাইসাইকেল চালাতে প্রয়োজন শারীরিক শক্তি। জ্বালানী খরচ বাঁচাতে গিয়ে ব্যয় হবে শারীরিক শক্তি, আবার শারীরিক বাঁচাতে গিয়ে বাড়বে জ্বালানী খরচ।

বাজারে এসেছে সবার চালানোর উপযোগী তিন চাকার ইলেকট্রিক  বাইক 1

সকলেই হয়ত ভাবছেন এর মাঝামাঝি কিছু একটা হলে কতই না ভাল হত! সকলের এমন চিন্তাকে কাজে লাগিয়েই এবার আকিজ মটরস বাজারে আনলো তিন চাকার ইলেকট্রিক বাইক। বাইকটির নাম দেওয়া হয়েছে সাথী। অনেকেই আছেন যারা বাইসাইকেল বা মটরসাইকেল চালাতে পারেন না বা চালাতে ভয় করে, এমন সবাই এই বাইক চালাতে পারবেন। কারণ এতে রয়েছে তিনটি চাকা যা আপনার ভারসাম্য রক্ষা করবে। এই বাইক চলবে ইলেকট্রিক চার্জে, তাই খরচ খুবই কম। বাইকের সিটের সাথে রয়েছে হেলান দেওয়ার মত ব্যবস্থা।

এই বাইকের রেজিস্ট্রেশনের কোন ঝামেলা নেই। ফলে ঝামেলা এড়িয়ে দেশের যেকোন স্থানে এই বাইক চালাতে পারবেন। বাইকটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৬০ ভোল্ট ২০ অ্যাম্পিয়ার বিশষ্ট ৬০০ ওয়াটের ব্যাটারি। ফলে একটানা ৫০-৬০ কিলোমিটার অনাসায়ে চলবে। এতে নেই কোন ধোয়া এবং শব্দ, ফলে এটি পরিবেশের জন্য খুবই উপকারী।

নিরাপত্তার জন্য ‘সাথী’র তিন চাকাতেই রয়েছে হাইড্রোলিক ডিস্ক ব্রেক। ৩০০/১০ সাইজের চাকা এবং যথেষ্ট গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স থাকাতে উঁচু-নিচু বা গতিরোধকগুলোও ‘সাথী’ সহজে টপকে যাবে। আরামদায়ক ভ্রমণের জন্য ই-বাইকটির পিছনের দুই চাকাতেই শক অ্যাবসর্ভার রয়েছে। মোবাইল চার্জ দেওয়ার জন্য রয়েছে চার্জার, গান সোনার জন্য রয়েছে সাউন্ড সিস্টেম। এছাড়া আরো নানা সুবিধা রয়েছে এই বাইকে।
চুরির কবল থেকে বাঁচতে সাধারণ লকের পাশাপাশি রয়েছে রিমোট কন্ট্রল লক। ফলে ডাবল সিকিউরিটি পাচ্ছেন।

সাধারণ জিনিসপত্র রাখার জন্য রয়েছে পর্যাপ্ত বক্স। কোথাও প্রয়োজনে পেছনে যাওয়ার প্রয়োজন হলে আপনাকে নামতে হবে না। শুধু গিয়ার চেঞ্জ করেই অনাসায়ে পেছনে যেতে পারবেন। দেশের যেকোন প্রান্তেই এই বাইক ক্রয় করতে পারবেন। পরিবেশ বান্ধব এই ই-বাইকটি ২৫০ কেজি পর্যন্ত ধারণ করতে পারে। সম্পূর্ণ মেইন্টেনেন্স মুক্ত ড্রাইসেলের ব্যাটারি ব্যবহার করাতে ই-বাইকটির আলাদাভাবে কোন যত্ন নেবার বিষয় নেই। এটি ক্রয় করার পরবর্তী ৬ মাস ফ্রি সার্ভিসিং পাবেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...