The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

বিশ্বের সর্বোচ্চ নিরাপত্তার চাদরে ঘেরা যুক্ত্ররাষ্ট্রের কিছু জায়গা

বিশ্বসেরা নিরাপত্তা বেষ্টিত জায়গাগুলোর মধ্যে বেশির ভাগই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রতিটি দেশ তাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য নানা ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। যুক্তরাষ্ট্র তার মধ্যে অন্যতম। আজ আমরা যুক্তরাষ্ট্রের এমন কিছু বিশেষ নিরাপত্তা বেষ্টিত জায়গা নিয়ে আলোচনা করব যা বিশ্বের সেরা নিরাপত্তা বেষ্টিত জায়গার মধ্যে অন্যতম।

ফেডালের রিজার্ভ ব্যাংক:

বিশ্বের সেরা ব্যাংকগুলোর মধ্যে ফেডালের রিজার্ভ ব্যাংক অন্যতম। কারণ বিশ্বের ধনী ব্যক্তিবর্গরা তাদের মূল্যবান অর্থ এবং সম্পদসমূহ এই ব্যাংকে গচ্ছিত রাখে। যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল রিজার্ভের যতগুলো ব্যাংক রয়েছে তার মধ্যে ম্যানহাটনের রিজার্ভ ব্যাংকটি সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তা বেষ্টিত। ব্যাংকটির ভোল্টের চারিপাশের দেওয়াল ৮ ফুট পুরু। এই ভবনটি প্রায় ৮০ ফুট ভুগর্ভস্থ পর্যন্ত রয়েছে। এই ভোল্টের প্রবেশদ্বার হিসেবে রয়েছে নব্বই টনের একটি সিলিন্ডার। এটি একবার বন্ধ করলে ভেতরে সামান্য বাতাসও প্রবেশ করতে পারে না।

ধারণা করা হয় পৃথিবীতে যত স্বর্ণ রয়েছে তার শতকরা ১০ ভাগ স্বর্ণ এই ব্যাংকে মজুত রয়েছে। এই ব্যাংকের মাত্র তিনজন ব্যক্তির এই ভোল্টে প্রবেশের অধিকার রয়েছে। তবে কেউ একা প্রবেশ করতে পারবে না। যখন প্রবেশের প্রয়োজন হবে, তখন তিনজন এক সাথে প্রবেশ করে। এছাড়া এই ব্যাংকের চারিদিকে রয়েছে নানা ধরণের আধুনিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

হোয়াইট হাউজঃ

নানা সুনামে খ্যাত বিশ্বের সকলের কাছে পরিচিত ভবনটি হচ্ছে হোয়াইট হাউজ। নামের সাথে এর রঙয়ের কোন পার্থক্য নেই। এই ভবনে বাস করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট। তাহলে বুঝতেই পারছেন কতটা নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে। সকলের দৃষ্টিগোচর হওয়ার মধ্যে রয়েছে লোহার গেট, বুলেট প্রুফ দরজা, পর্যবেক্ষণকারী রাডার, কাঁটা তার এবং চারিদিকে মোতায়েন করা অসংখ্য নিরাপত্তা রক্ষী। এছাড়া আসল নিরাপত্তা তো রয়েছে সবার অগোচরে। কারণ যে ভবনে বিশ্বের সেরা ক্ষমতাধারী ব্যক্তি বসবাস করে, সেখানে দৃশ্যমান নিরাপত্তা ব্যবস্থার ফাঁকে কেউ যদি মারাত্মক ক্ষতি করে তাই রয়েছে বেশ কিছু গোপন নিরাপত্তার ব্যবস্থা।

ভবনের চারিদিকে ছড়িয়ে রয়েছে বিশ্বের সেরা বুদ্ধি সম্পন্ন এবং যেকোন ধরণের বিপদে তাৎক্ষণিক কৌশল প্রয়োগ করার মত ২ হাজার ৩০০ কমান্ডো। এছাড়া প্রয়োজনে স্ট্রাইকিং ফোর্স রয়েছে ১ হাজার ৩০০ কমান্ডো। প্রেসিডেন্টকে সর্বোচ্চ বিপদ থেকে বাচানোর জন্য এই ভবনে ১৯৮৭ সালে একটা বাঙ্কার স্থাপন করা হয়েছে যা যেকোন ধরণের পারমানবিক বোমাতেও কিছু হবে না।

ফোর্ট নোক্সঃ

আমেরিকার বিখ্যাত সিকিউরিটি ব্যবস্থার মধ্যে এটি অন্যতম। এই ভবনে মূলত বিভিন্ন প্রয়োজনীয় দলিল-দস্তাবেজ, প্রায় দশ হাজার টন স্বর্ণ, এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতার নানা দলিল এই ভবনের ভোল্টে সংরক্ষণ করা আছে। যুক্তরাষ্ট্র সরকার এই ভবনের চারিদিকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দক্ষ প্রতিরক্ষা কর্মীদের দিয়ে ঘিরে রেখেছেন। যেকোন ধরণের হামলা থেকে নিজেদের এই ভবনকে রক্ষা করার জন্য সব ধরণের ব্যবস্থা রয়েছে। মূল ভল্টের ভিতরে প্রবেশ করার দরজার ওজন প্রায় বাইশ টন। দরজা ভেঙে কেউ ঢুকলেও ভল্টের ভিতর ঢুকতে পারা সম্ভব নয়। এমনকি এর দরজাতে পারমানবিক বোমা আঘাত প্রতিরোধের সক্ষমতা রয়েছে।

Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx