The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আপনার ফোনে আড়ি পাতলে কীভাবে বুঝবেন?

স্মার্টফোন ট্যাপ করা বর্তমান সময়ে খুব একটা কঠিন কাজ নয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বর্তমানে স্মার্টফোনের ব্যবহার ক্রমেই বাড়ছে। স্মার্টফোন দিয়ে ঘরে বসে অনেক কাজ খুব সহজেই করে ফেলা যায়। কিন্তু মাঝে-মধ্যেই আড়িপাতার ঘটনার মতো ঘটনাও ঘটতে পারে। আড়ি পাতলে কীভাবে বুঝবেন?

একটি কম্পিউটার দিয়ে যে কাজগুলো করা সম্ভব, ঠিক একই কাজ একটি স্মার্টফোন দিয়েও করা যায়। স্মার্টফোনের অনেক সুবিধার পাশাপাশি এর কুফলও রয়েছে বিস্তর। স্মার্টফোন হ্যাক হওয়া, ট্যাপ করা, আড়ি পেতে কথোপকথন শুনে ফেলা ইত্যাদি বিষয়গুলো একটি নিয়মিত ঘটনায় পরিণত হয়েছে। স্মার্টফোনের তথ্য বেহাত হওয়া সম্পর্কে আমরা অনেক কিছু জানলেও আড়ি পাতার সঙ্গে পরিচিত নই আমরা অনেকেই। আপনার ফোনে আড়ি পাতলে আপনি কীভাবে বুঝবেন আসুন আজ সেটি জেনে নেওয়া যাক।

স্মার্টফোন ট্যাপ করা বর্তমান সময়ে খুব একটা কঠিন কাজ নয়। অনেকেই ভাবছেন কীভাবে সহজেই এই কাজটি করা যাবে? তাদের প্রশ্নের সহজ উত্তর হলো- এই কাজের জন্য সেলফোন নেটওয়ার্ক হ্যাক করার কোনো প্রয়োজন নেই। আপনার ফোনের ভালনেরাবিলিটি বা দুর্বলতা খুঁজে বের করে খুব সহজেই আপনার ফোনকে ট্যাপিং ডিভাইসে পরিণত করা যাবে।

কেও যদি আপনার ফোনে আড়ি পেতে কথোপকথন শোনে তাহলে আপনি কীভাবে তা বুঝবেন। যারা এই বিষয়টি নিয়ে ভাবছেন তাদের জন্য কয়েকটি কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হলো, আপনি খেয়াল করলেই খুব সহজেই বুঝতে পারবেন আপনার ফোন ট্যাপ করা হচ্ছে কিনা।

অস্বাভাবিক ব্যাকগ্রাউন্ড নয়েজ

আপনি একটু খেয়াল করলেই দেখতে পাবেন যে, ফোনে কথা বলার সময় অস্বাভাবিক ব্যাকগ্রাউন্ড নয়েজ বা অনেক সময় শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। আবার কখনও বিপ দেওয়ার শব্দও অনর্গল শুনতে পাওয়া যায়। এমন ঘটনা ঘটলে আপনাকে বুঝে নিতে হবে যে, আপনার ফোনে অন্য কেও আড়ি পেতেছে। কথা বলার ফাঁকে ফাঁকে আপনি কথা না বলে চুপ থেকে তখনও যদি ফোনে ওই শব্দগুলো আসতে থাকে তাহলেও ধরে নিবেন, আপনি ট্যাপিং-এর শিকার হয়েছেন। অপর একটি বিষয় হলো- আপনি যার সঙ্গে কথা বলছেন তার মোবাইলের নেটওয়ার্ক বার এবং আপনার মোবাইলের নেটওয়ার্ক বার ফুল থাকে অথচ কথা বলার সময় দেখা যায় তা ওয়েভের মতো কমে-বাড়ে তাহলেও আপনি বুঝে নিবেন আপনার ফোনটি ট্যাপিং এর আওতায় রয়েছে।

ব্যাটারি ব্যাকআপ লক্ষ্য করতে হবে

অনেক সময় দেখা যায়, স্মার্টফোনে ব্যবহৃত ব্যাটারির অবস্থা অনেক ভালো, অথচ ফোনের চার্জ খুব দ্রুতই শেষ হয়ে যাচ্ছে! অবশ্য বিভিন্ন কারণে এই ঘটনাটি ঘটতে পারে। স্মার্টফোনের যান্ত্রিক ত্রুটিও এর কারণ হতে পারে। যদি স্মার্টফোনের যাবতীয় সঠিকভাবে কাজ করার পরও চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যেতে থাকে তাহলে বুঝে নিবেন আপনার ফোনে কেও আড়ি পেতেছে বা আপনি ট্যাপিং এর শিকার হয়েছেন। আপনার ফোন কল অ্যাপের সাহায্যে তৃতীয়পক্ষের কাছে পাঠানোর সময় ফোনের ব্যাটারির চার্জ দ্বিগুণ ক্ষয় হয় ও এর জন্যই ফোন ট্যাপ করা হলে ফোনের ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যেতে পারে। তাছাড়া ফোন অস্বাভাবিক গরম হয়ে উঠতে পারে। তবে স্মার্টফোনে একসঙ্গে অনেক অ্যাপলিকেশন অন থাকলেও অনেক সময় এমনটি হতে পারে।

অদ্ভুত লক্ষণ খেয়াল করুন

কারও কারও স্মার্টফোন ট্যাপ করলে অনেক সময় সে ফোনটি নিজে নিজে বন্ধ এবং চালু হয়। আবার স্মার্টফোনটি অধিক পরিমাণে গরম হয়ে যায। কখনও কখনও স্মার্টফোনের ডিসপ্লের আলো আপনা আপনিই জ্বলতে দেখা যায়। আপনার ফোনটি ট্যাপিং এর আওতায় কিনা তা নিশ্চিত করতে হলে আপনার ফোনটি শাট ডাউন করতে হবে। যদি সম্পূর্ণ ফোন শাট ডাউন হওয়ার পরেও স্ক্রীনে আলো জ্বলতে দেখা যায় বা শাট ডাউন নিতে অনেক দেরি হয় কিংবা শাট ডাউন ফেইল হয়ে যায়, তাহলেই বুঝতে হবে অবশ্যই কোনো সমস্যা রয়েছে আপনার স্মার্টফোনে।

অযথা ফোনের বিল বেড়ে যাওয়া

ট্যাপিং এর কাজে ব্যবহৃত অ্যাপগুলো স্মার্টফোনের ডাটা ব্যবহার করে। যদি আপনার ফোনে ডাটা প্ল্যান অ্যাক্টিভ করা থাকে তাহলে আপনার ফোনের ডাটা বিল ক্রমেই বেড়ে যেতে পারে। আপনার স্মার্ট ফোনের সিম যদি পোস্ট পেইড হয় তাহলে মাসের শেষের দিকে টের পাবেন ফোনের বিল কী পরিমাণ বৃদ্ধি পেলো। যদি প্রিপেইড নম্বর ব্যবহার করে থাকেন তাহলে বিল সংক্রান্ত বিষয়ে তেমন একটা টের পাওয়া যায় না। উপরোক্ত বিষয়গুলো খেয়াল করলেই আপনি বুঝতে পারবেন আপনার ফোনে কেও আড়ি পেতেছে কি না।

Loading...