The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

১৯ মার্চ শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপোর ১৫তম আসর

তথ্যপ্রযুক্তির বৃহত্তম এই প্রদর্শনীতে এ বছর প্রায় আড়াইশো দেশি-বিদেশী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের জন্য পণ্য ও সেবা প্রদর্শনের সুযোগ থাকবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ টেকনোলজি ফর প্রসপারিটি স্লোগান নিয়ে ১৯ মার্চ শুরু হচ্ছে দেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের ১৫তম বেসিস প্রদর্শনী সফটএক্সপো ২০১৯। এটি চলবে ২১ মার্চ পর্যন্ত।

১৯ মার্চ শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপোর ১৫তম আসর 1

টেকনোলজি ফর প্রসপারিটি স্লোগান নিয়ে ১৯ মার্চ শুরু হচ্ছে দেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের ১৫তম বেসিস প্রদর্শনী সফটএক্সপো ২০১৯। এটি চলবে ২১ মার্চ পর্যন্ত।

আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি) তে আয়োজিত ৩দিন ব্যাপী এই প্রদর্শনী উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানানো হয়।

গতকাল (শনিবার) বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছিলো। সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি এবং বেসিস সফটএক্সপো ২০১৯ এর আহ্বায়ক ফারহানা এ রহমান, সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ ও সহ-সভাপতি (অর্থ) মুশফিকুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় যে, বেসিস আয়োজিত তথ্যপ্রযুক্তির বৃহত্তম এই প্রদর্শনীতে এ বছর প্রায় আড়াইশো দেশি-বিদেশী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের জন্য পণ্য ও সেবা প্রদর্শনের সুযোগ থাকবে।

জানানো হয়, এই প্রদর্শনী এলাকাকে ১০টি জোনে ভাগ করা হয়েছে। তাছাড়াও নতুন সংযোজন ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ জোন ও এক্সপেরিয়েন্স জোন বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে ধরবে। এখানে থাকবে উইমেন জোন, ভ্যাট জোন, ডিজিটাল এডুকেশন জোন, ফিনটেক জোন ও বরাবরের মতো এবারও থাকবে সফটওয়্যার সেবা প্রদর্শনী জোন, উদ্ভাবনী মোবাইল সেবা জোন, ডিজিটাল কমার্স জোন, আইটিইএস এবং বিপিও জোন। সেইসঙ্গে থাকবে ৩০টিরও বেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনার, যেখানে বক্তব্য রাখবেন শতাধিক দেশি-বিদেশী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা।

বেসিস প্রদর্শনী সফটএক্সপো ২০১৯ এ দেশি-বিদেশী ব্যবসায়ীদের জন্যে থাকছে বি-ট-ুবি ম্যাচমেকিং সেশন, যার মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা নিজেদের ব্যবসার প্রসার ঘটাতে পারবেন খুব সহজেই। আরও আয়োজন করা হবে কর্পোরেট আওয়ার, যেখানে অংশ নেবেন পাঁচ শতাধিক কর্পোরেট হাই অফিশিয়াল। শিক্ষার্থীদের জন্য থাকছে আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প ও বরাবরের মতো গেমিং ফেস্ট থাকছে।

বেসিস সফটএক্সপো ২০১৯ সম্পর্কে বেসিসের সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেছেন, দেশের সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্প্রসারণে এই এক্সপোর আয়োজন করা হয়ে থাকে। প্রায় আড়াইশো প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। দেশের সফটওয়্যারের নিজস্ব চাহিদা পূরণে সক্ষমতা প্রদর্শন এবং আস্থা তৈরিই এ প্রদর্শনীর মূল লক্ষ্য।

বেসিস সফটএক্সপো ২০১৯-এর আহ্বায়ক ফারহানা এ রহমান বলেছেন, আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাত সামনে এগিয়ে যাচ্ছে বলেই ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। আমাদের এই আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে ধরবো আমরা। এবারের আসরে আমরা সারাদেশ থেকেই প্রচুর সাড়াও পেয়েছি। নারী উদ্যেক্তাদের জন্য এবার থাকছে উইমেন জোন। শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিটি স্টলেই থাকবে সিভি জমা দেওয়ার সুবিধা।

Loading...