The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

গাড়ির দরজার সঙ্গে ভাগ্যের দরজাও খুলে গেলো!

৪ লাখ ৮৯ হাজার ২১১ ইউএস ডলার জিতে গেছেন তিনি!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলিনার বাসিন্দা জন হেপবার্ন। প্রায়ই তিনি কেনে লটারির টিকেট। এবারও তিনি ৫টি টিকেট কিনেছিলেন। তার গাড়ির দরজার সঙ্গে এবার খুলে গেলো ভাগ্যের দরজাও!

গাড়ির দরজার সঙ্গে ভাগ্যের দরজাও খুলে গেলো! 1

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলিনার বাসিন্দা জন হেপবার্ন। প্রায়ই তিনি কেনে লটারির টিকেট। এবারও তিনি ৫টি টিকেট কিনেছিলেন। সাধারণত টিকেট কিনে তিনি তার ব্যক্তিগত গাড়ির দরজাতেই রেখে দেন। এবারও তার ক্রয় করা ৫টি লটারির টিকিটই গাড়ির দরজায় রেখে দিয়েছিলেন।

সম্প্রতি ড্র হয় সেই লটারির। তবে তিনি নিজেও জানতেন না যে কি ঘটতে চলেছে তার ভাগ্যে। টিকেটগুলো গাড়ির দরজা থেকে নেওয়ার সময় খুব জোরে বাতাস ওঠে। ৫টি টিকিটের মধ্যে কয়েকটা বাতাসে উড়েও যায়। পরে যে কয়টা টিকেট ছিল সেগুলো চেক করেন হেপবার্ন। তাতেই ঘুরে যায় তার ভাগ্যের চাকা।

তিনি দেখলেন যে, তার কেনা ৫টি টিকেটের মধ্য কেবল একটি টিকেট অবশিষ্ট রয়েছে এবং ভাগ্যগুণে ওই একটিতেই ৪ লাখ ৮৯ হাজার ২১১ ইউএস ডলার জিতে গেছেন তিনি!

টিকেট সম্পর্কে হেপবার্ন বলেন, যখনই আমি লটারির টিকেট কিনি, তখনই গাড়ির দরজায় রেখে দিই। কয়দিন ধরে আমি সেগুলো চেকও করি না। অনেক সময় গাড়ির দরজা খুললে বাতাস এসে সেগুলো উড়িয়েও নিয়ে যায়।

হেপবার্ন বলেছেন, লটারিতে কতো টাকা জিতেছি তা জানতে আমার ছেলে আমাকে বিভিন্ন সময় সাহায্য করেছে। সে যখন আমাকে এই কথা বলেছে তখন আমি বিশ্বাস করতেও পারিনি।

হেপবার্ন আরও জানিয়েছেন যে, এই টাকা দিয়ে তিনি তার নাতি-নাতনির জন্য ভালো কিছু করার পরিকল্পনা করছেন। তাছাড়া তার কিছু ঋণও রয়েছে, সেগুলো তিনি পরিশোধ করবেন।

Loading...