The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

হিজাব ও স্কার্ফ ব্যবহার নিষিদ্ধের প্রতিবাদে অস্ট্রিয়ার সংসদে স্কার্ফ পরে প্রতিবাদ নারী এমপির

অস্ট্রিয়ার সংসদে স্কার্ফ নিষিদ্ধ করা সম্পর্কে বিলটির পক্ষে ভোট দেন ক্ষমতাসীন মধ্য ডানপন্থী দল পিপলস পার্টি ও উগ্র ডানপন্থী ফ্রিডম পার্টির সকল সদস্য

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ অস্ট্রিয়ায় হিজাব ও স্কার্ফ ব্যবহার নিষিদ্ধ করার বিরুদ্ধে দেশটির সংসদে একজন নারী এমপি মাথায় স্কার্ফ পরে প্রতিবাদ করেছেন। গত শুক্রবার (১৭ মে) মারথা বিসম্যান নামে স্বতন্ত্র ওই নারী এমপি সংসদে বক্তৃতা দিতে উঠে স্কার্ফ পরে প্রতিবাদ জানান।

হিজাব ও স্কার্ফ ব্যবহার নিষিদ্ধের প্রতিবাদে অস্ট্রিয়ার সংসদে স্কার্ফ পরে প্রতিবাদ নারী এমপির 1

এর ঠিক আগের দিন গত বৃহস্পতিবার অস্ট্রিয়া সরকার দেশটির প্রাইমারি স্কুলের মেয়েদের জন্য স্কার্ফ নিষিদ্ধ করে বিল পাস করেছে। এর আগে দেশটি নারীদের হিজাব পরার ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিলো। এর প্রতিবাদে সংসদে হিজাব পরার পর মারথা বিসম্যান বলেছেন, “আমাদের মোটেও উচিত হবে না আমাদের মধ্যে কোনো বাধা সৃষ্টি করা।”

অস্ট্রিয়ার সংসদে স্কার্ফ নিষিদ্ধ করা সম্পর্কে বিলটির পক্ষে ভোট দেন ক্ষমতাসীন মধ্য ডানপন্থী দল পিপলস পার্টি ও উগ্র ডানপন্থী ফ্রিডম পার্টির সকল সদস্য।

তবে বিরোধীদলের প্রায় সব সদস্যই এর বিপক্ষে ভোট দেন। ইতিপূর্বে ২০১৭ সালের মে মাসে মুসলিম মহিলাদের বোরকা এবং নিকাব নিষিদ্ধ করে আইন পাস করে অস্ট্রিয়ার সরকার। বোরকা ও নিকাবের পর এবার স্কার্ফ নিষিদ্ধ হওয়ায় মুসলমানরা হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে আরও বলা হয়, সরাসরি মুসলমানদেরকে টার্গেট করেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কারণ ইহুদিদের মাথায় টুপি ও শিখদের পাগড়ি এই আইনের আওতার বাইরে রাখা হয়। উল্লেখ্য যে, অস্ট্রিয়ায় প্রায় ৭ লাখ মুসলমানের বসবাস করে আসছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...