The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এমন এক গ্রাম যে গ্রামে মাটি খুঁড়ে পানি নয় পাওয়া যায় স্বর্ণ!

ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের রাইচুর জেলা হতে প্রতিবছর ৫ দশমিক ৫ লাখ টন স্বর্ণ উৎপন্ন হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সত্যিই পৃথিবীতে কতো রকম গ্রাম রয়েছে। যে সব গ্রামে সব অদ্ভুত ঘটনা ঘটে। যেমন ঘটেছে ভারতের কর্ণাটক রাজ্যে। সেখানকার এমন এক গ্রাম যে গ্রামে মাটি খুঁড়ে পানি নয় পাওয়া যায় স্বর্ণ!

এমন এক গ্রাম যে গ্রামে মাটি খুঁড়ে পানি নয় পাওয়া যায় স্বর্ণ! 1

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের রাইচুর জেলা হতে প্রতিবছর ৫ দশমিক ৫ লাখ টন স্বর্ণ উৎপন্ন হয়। তবে এই জেলার প্রতিটি গ্রামে পানির বড়ই অভাব। সেখানে চলছে পানির জন্য হাহাকার।

ভারতের আবহাওয়া অধিদফতরের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমের এক খবরে বলা হয়, গত বছরের জুন এবং ডিসেম্বর মাসের মধ্যে এই জেলাতে ৫৭ শতাংশ বৃষ্টি কম হয়েছে। চলতি বছরের জানুয়ারি এবং এপ্রিলের মধ্যে যে পরিমাণ বৃষ্টি হওয়ার কথা, তার থেকে প্রায় ৬৫ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানানো হয়।

কাদ্দোনি গ্রামটিতে মোট ৪৫০ জনের বসবাস। পানির চাহিদা মতো প্রশাসন থেকে কোনো সেবাও মিলছে না বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের। গ্রামের মারুতি মন্দিরের পুরোহিত বীরাভদ্র হিরেমাথ বলেছেন, আমরা মাটি থেকে স্বর্ণ পাই, তবে পানি পাই না।

যদিও গ্রামবাসীদের একাংশ বলছে, পানি কোথায় থেকে পাবে সরকার। শুকনো মাটির নিচেও তো পানি নেই। তাদের শুধু শুধু দোষ দিয়ে কোনো লাভ নেই।

প্রতিদিন পানির ট্যাঙ্কার এলেও তা বাসিন্দাদের চাহিদা মেটাতে পারছে না। পানির জন্য লম্বা লাইন, চাহিদা মেটাতে এক একটি পরিবার ১২টি বা তার বেশি পানির পাত্র নিয়ে আসছেন। এই পানি পানের পাশাপাশি অন্য কাজের ক্ষেত্রেও এই পানিই ব্যবহার করা হচ্ছে।

কাদ্দোনি এলাকার এই বেহাল অবস্থা হতে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেকেই গ্রাম ছেড়ে অন্যত্র বসবাস শুরু করেছেন। বেশিভাগ মানুষ হু্টি গোল্ড মাইনের দিকে চলে গেছেন বলে দাবি করেছেন গ্রামের প্রবীণরা।

Loading...