The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এক ভারতীয় কিশোরী প্রেমের টানে বাংলাদেশে ছুটে এলো!

বিষয়টি প্রশাসনিক পর্যায়ে যাওয়ার পর গত শনিবার দুপুরে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ওই কিশোরীকে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করে বিজিবি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এবার প্রেমের টানে কাটাতারের সীমান্ত পেরিয়ে এলো এক ভারতীয় কিশোরী! ভারতীয় ওই কিশোরীর নাম রাজিয়া খাতুন (১৬)। এই ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামে।

এক ভারতীয় কিশোরী প্রেমের টানে বাংলাদেশে ছুটে এলো! 1

এই ঘটনার পর বিষয়টি প্রশাসনিক পর্যায়ে যাওয়ার পর গত শনিবার দুপুরে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ওই কিশোরীকে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করে বিজিবি। ওই কিশোরী ভারতের কোচবিহার জেলার দিনহাটা থানার খারিদা হরিদাস গ্রামের আনু মিয়ার কন্যা।

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, দীর্ঘ প্রেমের সূত্র ধরে গত শুক্রবার রাত ১১টার দিকে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার কমন্ডল গ্রামের মাহালম মিয়ার ছেলে প্রেমিক জাহিদ হাসানের (২০) কাছে চলে আসে ভারতীয় কিশোরী রাজিয়া।

রাজিয়ার কাছে তার আসার কাহিনী শুনে মাথায় হাত পড়ে জাহিদের আত্মীয়দের মধ্যে। তারাই তড়িঘড়ি করে যোগাযোগ করেন কুড়িগ্রামের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর সঙ্গে। অনুপ্রবেশকারী হিসেবে চিহ্নিত হয় রাজিয়া খাতুন। তাকে নিয়ে শুরু হয় টানাপোড়েনও।

অপরদিকে বাড়ির মেয়ে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে চলে গিয়েছে তা জানতে পেরেই রাজিয়ার পরিবার যোগাযোগ করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষি বিএসএফের সঙ্গে। তার ছবি এবং বিবরণ দিয়ে বিএসএফ বার্তা পাঠায় বিজিবিকে। তথ্য মিলে যেতেই বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

পরে দীর্ঘ আলোচনা এবং শলা পরামর্শের পর বিএসএফের কাছে রাজিয়া খাতুনকে হস্তান্তর করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

এই বিষয়ে লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়নের অধীন শিমুলবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার গোলাম মোহাম্মদ এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে উদ্ধারকৃত কিশোরীকে ইতিমধ্যেই হস্তান্তর করা হয়েছে।

Loading...