The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বিজেপির ওয়েবসাইট হ্যাক করে তাতে গরুর মাংসের রেসিপি পোস্ট!

নির্বাচনের আগেও বিজেপির ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হ্যাকার গ্রুপের পক্ষ হতে বিজেপির ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয়েছে। সেই সঙ্গে পোস্ট করা হয় গরুর মাংসের ছবিসহ ৬টি রেসিপি! তবে এখনও কোনো প্রতিষ্ঠান এই হ্যাকিংয়ের দায় স্বীকার করেনি।

বিজেপির ওয়েবসাইট হ্যাক করে তাতে গরুর মাংসের রেসিপি পোস্ট! 1

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা গেছে, বিজেপির ওয়েবসাইট হ্যাক হওয়ার বিষয়টি প্রথম নজরে নিয়ে আসেন ফরাসি সাইবার নিরাপত্তা গবেষক ইলিয়ট এল্ডারসন।

তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘ডিয়ার @ BJP4India আপনাদের ওয়েবসাইট হ্যাক হয়েছে। এবার ওয়েবসাইট রিস্টোর করতে আপনাদের কতোদিন লাগবে?’ অপর একটি টুইটে তিনি ব্যঙ্গ করে বলেছেন, ‘জানতাম না বিজেপি মানে বিফ জনতা পার্টি’!’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে যে, হ্যাক হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই ডাউন হয় যায় এই ওয়েবসাইটটি। তারপর দিল্লি বিজেপির ওয়েবসাইটকে বিজেপি ইন্ডিয়া ওয়েবসাইটে রি-ডিরেক্ট করে দেওয়া হয়। নির্বাচনের আগেও বিজেপির ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয় এবং অনেকদিন ওয়েবসাইটটি ডাউন ছিল। তখন অবশ্য মাংসের ছবি পোস্ট করা হয়নি।

উল্লেখ্য, মোদি সরকার ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর হতেই গরু নিয়ে বিভিন্ন গুজব তুলে মুসলিমদের ওপর হিন্দুত্ববাদী নিপীড়ন-নির্যাতন এবং হত্যাকাণ্ড শুরু হয়। ২০১৫ সালের ২৮ সেপ্টেম্বরে ভারতের উত্তর প্রদেশের দাদরি এলাকায় গরুর মাংস সংরক্ষণের গুজবে মোহাম্মদ আখলাক নামে এক মুসলিমকে পিটিয়ে হত্যা করে গ্রামবাসী। এর ধারাবাহিকতায় এখনও ওই স্থানে গরুকে হিন্দুত্ববাদী অস্ত্র বানিয়ে মুসলিম নিপীড়ন অব্যাহত রয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়ার খবরে জানা যায়, শুধু মুসলমানরা নয়, খ্রিস্টান অধ্যুষিত মেঘালয়েও গরুর মাংস খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে তাকে। অধিকার কর্মীরা অভিযোগ জানিয়ে বলেছেন যে, গোরক্ষকদের নিন্দায় মোদি সরকার একেবারেই অনিচ্ছুক। যে কারণে পুলিশও তাদের বিরুদ্ধে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করে না। তথ্যসূত্র: www.deshebideshe.com

Loading...