The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এই বর্ষায় চুলের সঠিক যত্ন নেবেন যেভাবে

সঠিক যত্ন ছাড়া আমাদের এই চুল হারায় তার সৌন্দর্য

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সুন্দর ঝলমলে চুল আমাদের কার না ভালো লাগে? সুন্দর চুল যেন আপনার মাধুর্য আরো শত গুণ বারিয়ে তোলে। সকল অবস্থাতেই এলোক্যাশ বিমোহিত করে তোলে আমাদের মনকে। এই বর্ষায় চুলের সঠিক যত্ন কিভাবে নেবেন সেটি জেনে নিন।

এই বর্ষায় চুলের সঠিক যত্ন নেবেন যেভাবে 1

আমাদের এই সৌন্দর্য বর্ধক চুলকে সঠিক রূপে উপস্থাপন করতেও আমাদের করতে হয় নানান সব বোঝাপড়া। সঠিক যত্ন ছাড়া আমাদের এই চুল হারায় তার সৌন্দর্য। তাই সকল আবহাওয়ায় আমাদের চুলের যত্নের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।

বর্ষাকালে আমাদের চুলের প্রতি আরো যত্নশীল হতে হবে। বর্ষার সময়ে বাংলাদেশের আবহাওয়া থাকে ঠাণ্ডা ও স্যতস্যতে যার ফলে আমাদের মাথার ঘাম, পানি ইত্যাদি সহজে শুকাতে পারে না। মাথায় স্যতস্যতে অবস্থার কারনে আমাদের মাথায় ছত্রাকের আক্রমনের বা বাশা বাধার আশঙ্কা বেড়ে যায়। এই ছত্রাকের আক্রমনের ফলে আমাদের মাথায় চুলের গোড়ায় ইনফেকশন, খুশকি, চুল পড়াসহ নানা ধরনের সমস্যা ও রোগের সৃষ্টি হতে পারে। বর্ষার বৃষ্টির পানিতে এক ধরনের অ্যাসিড থাকে যা আমাদের চুলের ক্ষতি করে যার ফলে আমাদের চুল পরা, চুল রুক্ষ হয়ে যাওয়া সহ নানান সমস্যা দেখা যায়। বর্ষায় ধুলাবালির পরিমাণ অন্যান্য সময় থেকে কম থাকে যার ফলে আমরা অনেকেই ভাবি যে এই সময়ে চুলের তেমন একটা ক্ষতি হয় না।

আপনি যদি এমনটি ভেবে থাকেন তাহলে আপনার আশায় গুড়েবালি। এই ঋতুতে খুসকি যেমন বেড়ে যায় ঠিক তেমন ভাবে চুলের উজ্জলতাও কমে যায়। এই ঋতুতে উকুন বেড়ে যায় অন্যান্য ঋতুর থেকে বেশি হারে। আমাদের মধ্যে প্রায় অনেকেই চুল পড়া সমস্যায় ভুগছি। আপনি শুনে অবাক হবেন যে বর্ষাকালে অন্য সব ঋতু থেকে দ্বিগুণ চুল পড়ে থাকে।
আমরা আগেই জেনেছি যে বর্ষার সময় আমাদের মাথা ভেজা থাকে যার ফলে আমাদের মাথার তৈলাক্ততা বেড়ে যায় এবং ফলশ্রুতিতে চুলের গড়া নরম হয়ে পড়ে। আর এই নরম গড়ার প্রভাবে আমাদের মাথার চুল খুব সহজেই পড়ে যাওয়ার ঝুকিতে থাকে। আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যাদের ত্বক তৈলাক্ত আর এই সমস্যার বহনকারীরা বর্ষায় চুলের সমস্যায় অন্যদের থেকে একটু বেশি ভোগেন।

আমাদের চুলের এই বর্ষাকালীন সমস্যার সমাধানের জন্য সচেতনভাবে চুলের সঠিক পরিচর্যা করতে হবে। আমাদের সকলকে নিয়মিত শ্যাম্পু করতে হবে। অবশ্যই শ্যাম্পু যাতে ভালো মানের হয় সেদিকে আমাদের বিশেষ নজরদারি রাখতে হবে। যেহেতু এই ঋতুতে আমাদের মাথায় তেলের পরিমাণ বেড়ে যায় তাই আমাদের তেল থেকে ও তেল জাতীয় খাবার থেকে নিজেদেরকে বিরত রাখতে হবে। আমাদের সাপ্তাহে নিয়ম করে কম করে হলেও অন্তত একবার কিটোকনাজল শ্যাম্পু ব্যবহার করার অভ্যাস করতে হবে। মাথা পরিষ্কার করার পর যত দ্রুত সম্ভব চুলকে শুকিয়ে ফেলতে হবে।

আমাদের এই সময় প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে যাতে কোন প্রকার ব্রণ অথবা কোন প্রকার ইনফেকশন হতে না পারে। বর্ষায় আমাদের চুলের সঠিক উজ্জ্বলতা ধরে রাখার জন্য চুলের প্রতি বিশেষ নজর রাখতে হবে তার জন্য শ্যাম্পু করার পর পর আমাদের কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। ভালো মানের কন্ডিশনার আমাদের চুলকে করবে প্রাণবন্ত। কন্ডিশনারের পরিবর্তে আমারা শ্যাম্পু করার আগে আমাদের চুলে তেল ব্যবহার করতে পারি। আমাদের চুলের যত্নে আমরা ভিটামিন ই ক্যাপসুল ব্যবহার করতে পারি যা আমাদের চুলকে করবে আর ঘন ও মুজবুদ। চুলের যত্নে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের চাহিদা অনেক বেশি। ভিটামিন ই দুটি ক্যাপসুল এর সাথে দুটি ডিম ভালো করে ফেটে এর সাথে অলিভ অয়েল যুক্ত করতে হবে এই মিশ্রণ নিয়মিত ব্যবহার করলে খুব অল্প সময়ে আমরা ফল পাবো। এই মিশ্রণ ব্যবহারের ৩০ মিনিট পর মাথা ধুয়ে ফেলুন।

এছাড়া বর্ষায় চুল পড়া রোধে আমাদের অবশ্যই চুল ও মাথা পরিষ্কার রাখতে হবে। মাথা ভেজা রাখা যাবেনা। নিয়মিত ভালো খাবার গ্রহণ করতে হবে তেল জাতীয় খাবার বর্জন করতে হবে।

Loading...