The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ছেলে থেকে মেয়ে ও মেয়ে থেকে ছেলে হয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ!

এবার সত্যিই সবাইকে তাক লাগিয়ে দিলেন ভারতের এক লিঙ্গান্তরিত জুটি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রেমের কাছে সবকিছুই যেনো তুচ্ছ। এক কথায় বলা যায় প্রেমের কাছে সব কিছুই যেনো একেবারে তুচ্ছ। এই প্রেমে মজেছেন দুই ব্যক্তি যারা এক সময় একজন মেয়ে ও একজন ছেলে ছিলেন। এবার তারা ছেলে থেকে মেয়ে ও মেয়ে থেকে ছেলে হয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন!

ছেলে থেকে মেয়ে ও মেয়ে থেকে ছেলে হয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ! 1

প্রেমের কাছে সবকিছুই যেনো তুচ্ছ। এক কথায় বলা যায় প্রেমের কাছে সব কিছুই যেনো একেবারে তুচ্ছ। এই প্রেমে মজেছেন দুই ব্যক্তি যারা এক সময় একজন মেয়ে ও একজন ছেলে ছিলেন। এবার তারা ছেলে থেকে মেয়ে ও মেয়ে থেকে ছেলে হয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন!

এবার সত্যিই সবাইকে তাক লাগিয়ে দিলেন ভারতের এক লিঙ্গান্তরিত জুটি ৷ তাই তো প্রেম পেলো নতুন জীবন ৷ সম্প্রতি সাজনাতলায় সাত পাকে বাঁধা পড়লেন এই প্রেমিক তিস্তা ও দীপন জুটি। সকলেই যেনো তাদের এই প্রেমের গল্পেই বিভোর। লিঙ্গান্তরিত হয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া সত্যিই ব্যতিক্রমি ঘটনা বটে।

জন্মসূত্রে তিস্তা ছিলেন সুশান্ত ৷ অপরদিকে দীপন জন্মসূত্রে ছিলেন দীপান্বিতা নামে। এক জন নারীর শরীরে পুরুষ মন, অপরদিকে অন্যজনের ঠিক উল্টো। পুরুষের শরীরে মূলত বাস করেছিল নারী।

যাকে বলা যায় মনের সঙ্গে শরীরের লড়াই। সঙ্গে রয়েছে সমাজ। অনেক ঝড়-ঝঞ্ঝা কাটিয়ে সুশান্ত এক সময় হয়ে উঠলেন তিস্তা, অপরদিকে দীপন হয়ে উঠলেন দীপান্বিতা।

ছেলে থেকে মেয়ে ও মেয়ে থেকে ছেলে হয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ! 2

প্রথম দিকে সম্পর্কে জড়াতে একটু থমকে গিয়েছিলেন তিস্তা। ভেবেছিলেন সত্যিই কি প্রেম তার জীবনে কখনও আসবে? অপরদিকে তিস্তার প্রেমে একেবারে হাবুডুবু খাচ্ছিলেন দীপন। তবে তিস্তাকে বলতে ভয় পাচ্ছিলেন তিনি। অবশ্য পরের গল্পগুলো চললো তাদের নিজের গতিতেই। একে একে সব বাধা পেরিয়ে তিস্তা-দীপন সম্পর্ক এগোলো প্রেমের জোয়ারে। এখন সেই প্রেমই খুঁজে নিলো নতুন এক আশ্রয়। এবার সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন তিস্তা-দীপন। পশ্চিমবঙ্গে এমন ঘটনা এই প্রথম।

তিস্তার ভাষায়, এ যেনো সত্যিই এক স্বপ্নপূরণ। এমন এক মানুষকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেয়েছি, যে আমারই মতোন একজন মানুষ! তাকে বোঝার ক্ষমতা যেমন আমার আছে, আবার আমাকে বোঝার ক্ষমতাও তার রয়েছে। এভাবেই ব্যক্ত করেছেন নব পরীণিতা এই প্রেমিক ও প্রেমিকা। বিবাহ বন্ধন যেনো তাদের সাত জনমের হয় সেই প্রত্যাশা তাদের।

Loading...