The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নতুন বাঁধা স্বাস্থ্য বীমা!

স্বাস্থ্য বীমার কথা উল্লেখ করে অভিবাসীদের প্রবেশে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ স্বাস্থ্য বীমার কথা উল্লেখ করে অভিবাসীদের প্রবেশে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এই সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন মার্কিন প্রেসিডন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নতুন বাঁধা স্বাস্থ্য বীমা! 1

স্বাস্থ্য বীমার কথা উল্লেখ করে অভিবাসীদের প্রবেশে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এই সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন মার্কিন প্রেসিডন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে বলা হয়, প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকতে হলে স্বাস্থ্য বীমা চালু রাখতে হবে। এবং ওই স্বাস্থ্যসেবার ব্যয় নিজ খরচেই করতে হবে।

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে বলা হয়, আগামী এক মাসের মধ্যে যারা স্বাস্থ্যবীমার আওতায় আসবে না, তাদেরকে স্বাস্থ্য সেবার খরচ নিজেদেরই বহন করতে হবে। যারা পারবেনা তাদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকার কোনো সুযোগ নেই বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউজের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই খবর দিয়েছে।

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে বলা হয়, ওই প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নেওয়া শরণার্থীদের যোগ্যতাকে কোনো প্রভাবই ফেলবে না। আগামী ৩ নভেম্বর হতে এটি কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ক্ষমতায় আসার পর হতেই অভিবাসী প্রবেশে বেশ কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছে মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট। যদিও তা নিয়ে অনেকবার তাকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে ব্যাপকভাবে। বিশেষ করে মেক্সিকো সীমান্তে শরণার্থী প্রবেশে দেওয়াল নির্মাণ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে।

অবশ্য সেক্ষেত্রেও সফল হন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সম্প্রতি দেশটির সুপ্রিমকোর্ট দেওয়াল নির্মাণে অর্থ ব্যয়ের অনুমতিও দিয়েছে। এতে করে ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নতুন নতুন জটিলতা তৈরি করছেন।

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে বলা হয়, গত মাসে ট্রাম্প প্রশাসন বলেছিলেন যে, ২০২০ অর্থবছরে মাত্র ১৮ হাজার শরণার্থীকে আশ্রয় দিবে যুক্তরাষ্ট্র। যা আমেরিকার ইতিহাসে এটা একেবারেই সর্বনিম্ন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, পর্যাপ্ত হাসপাতাল থাকা সত্যেও অর্থনৈতিক সংকটের কারণে সেগুলোতে স্বাস্থ্যসেবা দিতে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয়। এ মতাবস্থায় অভিবাসীদের বিনা খরচে স্বাস্থ্যসেবা দিতে গেলে আমাদের আরও বেশি হিমশিম খেতে হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, এই সেবা নতুন করে যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী হিসেবে প্রবেশ করতে চাইছেন শুধুমাত্র তাদের জন্য প্রযোজ্য হবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...