The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

২০টি ইমেইল যা আপনার কখনোই খোলা উচিত নয়

আধুনিক বিশ্বের উন্নত সকল দেশের পাশাপাশি আমাদের দেশে সাইবার অপরাধের মাত্রা বেড়েছে তীব্র হারে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বর্তমানে আধুনিকায়নের ফলে ও নানাবিধ আধুনিক আবিষ্কার ব্যবহারের ফলে আমাদের জীবনব্যবস্থার মান উন্নয়নের পাশাপাশি আমাদের জীবন যাপন যতটা সহজ হয়েছে ঠিক ততটাই ঝুঁকিও রয়েছে আমাদের এই আধুনিক জীবন-ব্যবস্থাতে।

২০টি ইমেইল যা আপনার কখনোই খোলা উচিত নয় 1

আমরা নানাবিধ কাজে ইন্টারনেট এর ব্যবহার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে জড়িত। বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যমের ফলে আমাদের প্রায় সকল কার্য সম্পাদন হয়ে থাকে যা আমাদের জীবনব্যবস্থাকে করেছে সহজতর তবুও আমাদের এই আধুনিক জীবনের মাঝে ইন্টারনেট ব্যবহারের মধ্যে রয়েছে হাজারো বাধ্যবাধকতা। নানাবিধ ঝুঁকির মাঝে আমরা আমাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্টারনেট ব্যবহার করে চলেছি দিনের পর দিন। যার ফলে অসচেতনতার মাধ্যমে আমরা হতে পারি হাজারো ভোগান্তির শিকার। ইন্টারনেট দ্বারা গঠিত সকল প্রকার ভোগান্তি কে সাইবার ক্রাইম বলা হয় যা সম্প্রতি বৃদ্ধি পাচ্ছে অধিক হারে।

আধুনিক বিশ্বের উন্নত সকল দেশের পাশাপাশি আমাদের দেশে সাইবার অপরাধের মাত্রা বেড়েছে তীব্র হারে। যার ফলে যৌন হয়রানি সহ নানাবিধ অপকর্মে লিপ্ত হচ্ছে হাজারো যুবক যুবতী। এসব সাইবার অপরাধীর সংখ্যাও বেড়ে চলেছে আমাদের দেশে। ব্ল্যাকমেইলিং এবং চাঁদাবাজি করার ক্ষেত্রে অপরাধীরা ও সন্ত্রাসীরা প্রখর ছিল তবে এখন আর এটি সাইবার-অপরাধীরা করে চলেছে। সাইবার অপরাধীদের এই সক্রিয় ভাবে উজ্জীবিত হওয়া নিয়ে আশঙ্কায় পড়েছে সুশীল সমাজের মানুষেরাও। নানাবিদ পারিবারিক কলহ থেকে শুরু করে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও অফিস-আদালতের কাজেও ঘটতে পারে এই সাইবার ক্রাইম। সাইবার অপরাধ ঘটতে পারে নানাবিধ যোগাযোগ মাধ্যম বা সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহারের অসতর্কতার দ্বারা। আজকে আমরা ইমেইল সংক্রান্ত সাইবারক্রাইম বা কোন কোন ইমেইল দ্বারা আমাদের ঝুঁকি হতে পারে এ সকল বিষয় তুলে হয়েছে এ লেখায়।

সম্প্রতি বহির্বিশ্বে বিভিন্ন দেশে ইমেল দ্বারা প্রতারণার মাত্রা বেড়ে চলেছে। ইমেইল দ্বারা খুব সহজেই প্রতারিত হচ্ছে লাখ ব্যবহারকারী যার ফলে হ্যাকাররা ফায়দা লুটে চলেছে নানা কৌশল ব্যবহার মাধ্যমে। একটি মেইল দ্বারা তারা নানা কৌশলে পেমেন্টের দাবি করে থাকে যার ফলে পেমেন্ট দাবি মেনে না নিলে প্রাপকের সাথে সম্পর্কিত যৌনসামগ্রী প্রকাশ করে দেওয়ার হুমকি দেয় এটি করার ক্ষেত্রে হ্যাকাররা একটি স্প্যাম বট সক্রিয় করে রাখে। উক্ত স্প্যাম বট ইমেইল ঠিকানা গুলোর একটি ডাটাবেজ ডাউনলোড করে রাখে। উক্ত ইমেইল থেকে সংগৃহীত ডাটাবেজ থেকে ঠিকানা এলোমেলোভাবে নির্বাচন করা হয় যার ফলে একটি বার্তা বেশ কয়েকটি হার্ডকর্ড যুক্ত স্ট্রিং থেকে রচিত হয়।

স্প্যাম বট ইমেল ঠিকানার সাথে মিশ্রিত পাসওয়ার্ড সহ ডাটাবেসগুলি ব্যবহার করে থাকে। একজন শিকারের পাসওয়ার্ড সাধারণত আরও স্পর্শকাতর করতে এবং আক্রমণকারীর কাছে পাসওয়ার্ডটি পরিচিত তা দেখানোর জন্য একটি স্প্যাম ইমেল বার্তায় অন্তর্ভুক্ত থাকে। যার ফোলে ব্যবহারকারী ভয় পেয়ে জেতে পারে। ভয়ের ফলে অপরাধী আরো সক্রিয় হয়ে পরতে পারে। তাহলে আসুন জেনে নেই এমন ৩৫টি ইমেইল যা কখনোই আমাদের খোলা উচিত নয়।

1. You better read this.
2. Your life can be ruined.
3. Videos of you.
4. You better pay me.
5. Safe your privacy.
6. I give you one chance.
7. Your password.
8. You better pay me.
9. I know your password.
10. Infected your computer.
11. Pay.
12. You got recorded.
13. Better read.
14. No longer privet.
15. Your privacy.
16. Don’t wait too long.
17. You got owned.
18. I know everything.
19. I infected your pc.
20. You dirty pervert.
21. Read carefully.
22. Safe your life.
23. I can ruin your life.
24. Dirty pervert.
25. Read
26. Stop watching porn.
27. You got hacked.
28. Everyone will know.
29. I hacked you.
30. Take care next time.
31. Your privet data.
32. Take care.
33. I recorded you.
34. I won’t wait too long.
35. Few days’ time.

Loading...