The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

রাজপথের নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের পাশে থাকবেন শিল্পীরা

রাজপথের এই নায়কের অপমানে প্রতিবাদ জানিয়েছেন অনেকেই

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক॥ ঢাকাই চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন করে আসছেন দীর্ঘ ২৬ বছর ধরে। ইলিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান ১৯৯৩ সালে।

রাজপথের নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের পাশে থাকবেন শিল্পীরা 1

এরপর ইলিয়াস কাঞ্চন ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলন শুরু করেছিলেন। সেই থেকে নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলন এখনও চলছে। শত বাঁধা উপেক্ষা করে তিনি নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন করে যাচ্ছেন।

গত ১ নভেম্বর থেকে নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর হয়েছে। এই নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারের দাবিতে পরিবহন শ্রমিকরা কর্মবিরতিও পালন করে যাচ্ছে। এদিকে কয়েক দিন আগে দেখা গেছে সবাই যেনো এই আইন মেনে চলেন, পথে ঘুরে ঘুরে গাড়ি চালকদের বোঝানোর চেষ্টা করছেন ইলিয়াস কাঞ্চন।

এতে করে শ্রমিকরা ক্ষেপেছে। রাজপথে তার কুশপুত্তলিকাও দাহ করা হয়, তার ছবিও পোড়ানো হয়েছে। তাকে হেনস্থা করার চেষ্টাও করা করেছে। রাজপথের এই নায়কের অপমানে প্রতিবাদ জানিয়েছেন অনেকেই।

দেশের সাধারণ লক্ষ লক্ষ মানুষ দাঁড়িয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চনের পাশে। এবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিও দাঁড়িয়েছেন এই নায়কের পাশে। ব্যক্তিগতভাবে কিছু তারকারাও ইলিয়াস কাঞ্চনের অপমানের প্রতিবাদ জানিয়েছেন জোরালোভাবে।

এই বিষয়ে চিত্রনায়ক রুবেল বলেছেন, ‘নিরাপদ সড়কের দাবি নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করে চলেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তার সঙ্গে দেশের সাধারণ মানুষ রয়েছেন। তাকে নিয়ে যেসব মানুষ বাজে পোস্টার ছাপিয়েছে তারা মূলত নোংরা মনের পরিচয় দিয়েছেন। আমি এই ঘটনার প্রতিবাদের পাশাপাশি তাদের বিচারের আওতায় আনার জন্য দাবি জানাচ্ছি।’

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেছেন, ‘কাঞ্চন ভাইয়ের পাশে শিল্পী সমিতি সব সময় থাকবে। যারা নিরাপদ সড়ক চায় না তারা দেশের ও সমাজের শত্রু। যারা ইলিয়াস কাঞ্চন ভাইকে অপমান করেছেন তাদেরকে শিল্পী সমিতির পক্ষ হতে তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি। কাঞ্চন ভাই র্দীঘদিন ধরে মানুষকে সচেতন করে আসছেন, এটা সত্যিই আমাদের গর্বের বিষয়।’

এই বিষয়ে চিত্রনায়ক সাইমন বলেছেন, ‘সারাদেশের মানুষ সকলেই নিরাপদ সড়ক চাই। এটার বিরোধিতা করার কোনো কারণই নেই।’

এই বিষয়ে নায়ক শাহরিয়াজ বলেছেন,‘আমাদের একজন ইলিয়াস কাঞ্চন রয়েছেন। একজন শিল্পী কোনো পদ, গদি বা ক্ষমতার আশায় নয়, সুস্থ নিরাপদ জীবনের জন্য সকলের জন্য কাজ করে যাওয়ার নিদারুণ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সারাদেশের মানুষ সকলেই নিরাপদ সড়ক চাই। এটির বিরোধিতা করার কোনোই কারণ নেই।’

এই বিষয়ে নির্মাতা রাশিদ পলাশ বলেছেন, ‘একদিন ঝড় থেমে যাবে, পৃথিবী আবারও শান্ত হবে। আমি রাশিদ পলাশ এই বাঁশিওলার সাথেই আছি।’

সাধারণ মানুষও সোশ্যাল মিডিয়ায় ইলিয়াস কাঞ্চনের সঙ্গে আছেন বলে সমর্থন জানিয়েছেন। সাধারণ মানুষ মনে করেন অনেকেরই আপনজন হয়তো দুর্ঘটনায় মারা যান। কিন্তু কেও তারপরও নিরাপদ সড়কের জন্য এভাবে আন্দোলন করেন না। যা করেছেন ইলিয়াছ কাঞ্চন। তিনি দীর্ঘদিন যাবত জনগণের পাশে থেকে নিরাপদ সড়কের আন্দোলন করে আসছেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...