The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ভ্রমণ: ঘুরে আসতে পারেন দিনাজপুরের ঐতিহাসিক রাজবাড়ী হতে

দিনাজপুর জেলার ইতিহাস ও ঐশ্বর্যের প্রতীক হিসাবে পরিগণিত হয়ে থাকে এই রাজবাড়ী

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শীত এলেই ভ্রমণের কথা মনে পড়ে। এই শীতে আপনি দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ঘুরে আসতে পারেন। যেমন ঘোরার একটি ভালো জায়গা হলো দিনাজপুরের ঐতিহাসিক রাজবাড়ী।

ভ্রমণ: ঘুরে আসতে পারেন দিনাজপুরের ঐতিহাসিক রাজবাড়ী হতে 1

দিনাজপুর শহরের খুব কাছেই অবস্থিত দিনাজপুর রাজবাড়ী। দিনাজপুর জেলার ইতিহাস ও ঐশ্বর্যের প্রতীক হিসাবে পরিগণিত হয়ে থাকে এই রাজবাড়ী। ১৯৫১ সালে জমিদারী প্রথার বিলুপ্তির পর হতে দিনাজপুর রাজবাড়ীর জৌলুশে যেনো ভাটা পড়তে থাকে। দিনাজপুর রাজবাড়ীর সর্বশেষ জমিদার জগদীশনাথ ১৯৬২ খ্রিস্টাব্দে কোলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন। বর্তমানে এই রাজবাড়ীটি কালের সাক্ষী হিসাবে দাঁড়িয়ে রয়েছে।

দিনাজপুর রাজবাড়ীর বিভিন্ন স্থাপনার মধ্যে রয়েছে কুমার মহল, আয়না মহল, রাণী মহল, আটচালা ঘর, লক্ষ্মী ঘর, ঠাকুর বাড়ী, কালীয়া জিউ মন্দির, রাণী পুকুর, আতুর ঘর, চাঁপা তলার দিঘী ইত্যাদি। এছাড়াও এই জমিদার বাড়ি হতে প্রাপ্ত রাজ বংশের ব্যবহৃত বিভিন্ন ঐতিহাসিক নিদর্শন ঢাকাস্থ জাতীয় জাদুঘর এবং দিনাজপুর মিউজিয়ামে সংরক্ষিত রয়েছে।

যাবেন কিভাবে

ঢাকা থেকে বাস কিংবা ট্রেনে দিনাজপুর যাওয়া যায়। ঢাকার গাবতলী এবং কল্যাণপুর হতে দিনাজপুরগামী বাসগুলো চলাচল করে। বাস সার্ভিসের মধ্যে নাবিল পরিবহন, এস আর ট্রাভেলস, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, এস এ পরিবহন, কেয়া পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য বাস রয়েছে। নন-এসি এবং এসি বাস ভাড়া মানভেদে ৬০০ হতে ১০০০ টাকা পর্যন্ত ভাড়া লাগবে।

তাছাড়া ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন কিংবা এয়ারপোর্ট রেলওয়ে স্টেশনে আন্তঃনগর দ্রুতযান এবং একতা এক্সপ্রেস ট্রেন সন্ধ্যায় এবং সকালে দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। একতা এবং দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেন যথাক্রমে মঙ্গল এবং বুধবার বন্ধ থাকে। শ্রেণীভেদে ট্রেনের টিকেট কাটতে জনপতি ৩০০ হতে ১১০০ টাকা লাগবে।

দিনাজপুর জেলা শহর হতে অটোরিকশা নিয়ে সরাসরি দিনাজপুর রাজবাড়ীতে যাওয়া যাবে।

থাকবেন কোথায়

দিনাজপুর শহরে উন্নত মানের হোটেলে থাকতে চাইলে পর্যটন মোটেল (0531-64718) যোগাযোগ করতে পারেন। পর্যটন মোটেলে রাত্রিযাপনের জন্য রুম ভেদে আপনাকে ভাড়া গুণতে হবে ১৫০০ থেকে ২২০০ টাকা। দিনাজপুরে অবস্থিত অন্যান্য আবাসিক হোটেলের মধ্যে রয়েছে হোটেল ডায়মন্ড, হোটেল আল রশিদ, নিউ হোটেল, হোটেল রেহানা, হোটেল নবীন ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য আবাসিক হোটেল।

খাবেন কোথায়

দিনাজপুরে রুস্তম, ফাইভ স্টার কিংবা দিলশাদ হোটেলে গরুর ভুনা মাংস, কাঠি কাবাব ও দিলশাদ রেস্তোরাঁর পাটিসাপটা আপনি খেয়ে দেখতে পারেন। এছাড়াও পুলাহাট বিসিক এলাকায় আবুল হোটেলে ভাত, গরু বা মুরগির মাংস, ডাল ও সবজি দিয়ে খাবার সেরে নিতে পারেন আপনি।

তথ্যসূত্র: https://vromonguide.com

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...