The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মসজিদ কমিটি কয়েক লাখ টাকা খরচ করে বিয়ে দিলো দরিদ্র হিন্দু মেয়ের!

ভারতের কেরালের আলাপুঝার চেরুভাল্লি মুসলিম জামায়াত মসজিদ কমিটি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মানবতা আসলে অন্য এক জিনিস। মানবতা কখনও ধর্মের সঙ্গে মিলিয়ে ফেলা যাবে না। আর তাই এমন একটি ঘটনা আমাদের সকলের কাছেই উদাহরণ হয়ে থাকবে। মসজিদ কমিটি কয়েক লাখ টাকা খরচ করে বিয়ে দিলো দরিদ্র এক হিন্দু মেয়েকে! দরিদ্র পরিবারের এক হিন্দু মেয়ের বিয়ে দিলৈা ভারতের কেরালের আলাপুঝার চেরুভাল্লি মুসলিম জামায়াত মসজিদ কমিটি। সম্প্রতি ওই মসজিদ প্রাঙ্গণে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিলো।

মসজিদ কমিটি কয়েক লাখ টাকা খরচ করে বিয়ে দিলো দরিদ্র হিন্দু মেয়ের! 1

মানবতা আসলে অন্য এক জিনিস। মানবতা কখনও ধর্মের সঙ্গে মিলিয়ে ফেলা যাবে না। আর তাই এমন একটি ঘটনা আমাদের সকলের কাছেই উদাহরণ হয়ে থাকবে। মসজিদ কমিটি কয়েক লাখ টাকা খরচ করে বিয়ে দিলো দরিদ্র এক হিন্দু মেয়েকে! দরিদ্র পরিবারের এক হিন্দু মেয়ের বিয়ে দিলৈা ভারতের কেরালের আলাপুঝার চেরুভাল্লি মুসলিম জামায়াত মসজিদ কমিটি। সম্প্রতি ওই মসজিদ প্রাঙ্গণে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিলো।

দরিদ্র পরিবারের এক হিন্দু মেয়ের বিয়ে দিলৈা ভারতের কেরালের আলাপুঝার চেরুভাল্লি মুসলিম জামায়াত মসজিদ কমিটি। সম্প্রতি ওই মসজিদ প্রাঙ্গণে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিলো।

কোলকাতার প্রভাবশালী পত্রিকা আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে যে, ওই মসজিদ চত্বরে হিন্দু মতে শরৎ ও অঞ্জুর বিয়ে দিলেন এক পুরোহিত। উপস্থিত ছিলেন দুই সম্প্রদায়েরই অতিথিবৃন্দ। তাদের জন্য ছিল কেরালের ঐতিহ্যবাহী নিরামিষ ভোজ।

সংবাদ মাধ্যমটির খবরে আরও বলা হয়, অঞ্জুদের পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা একেবারেই ভালো নয়। সে কারণে মসজিদ কমিটির কাছে সাহায্য চান অঞ্জুর মা। মেয়ের বিয়ের আয়োজন করে দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন তিনি।

মায়ের সেই আর্জিতে সাড়া দিয়েছেন মসজিদ কর্তৃপক্ষ। অঞ্জুকে বিয়ের উপহার হিসেবে ১০টি স্বর্ণমুদ্রা ও দুই লাখ টাকা দিয়েছেন মসজদি কমিটি। হাজার লোকের খাওয়া-দাওয়ারও ব্যবস্থাও করা হয়।

নবদম্পতি শরৎ এবং অঞ্জু, তাদের পরিবার ও মসজিদ কমিটিকে ফেসবুকে অভিনন্দন জানিয়েছেন কেরালের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেছেন যে, কেরাল সব সময়ই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এমন সুন্দরতম উদাহরণ বহন করে এসেছে। এটা সব সময় বজায় রাখতে হবে।

ফেসবুকে শরৎ-অঞ্জুর বিয়ের ছবি শেয়ার করে কেরালের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন আরও লিখেছেন, ‘এই বিয়ে এমন সময় হলো, যখন দেশে ধর্মের নামে মানুষের মধ্যে বিভাজন ঘটানোর চেষ্টা চলছে। কেরাল ঐক্যবদ্ধ ছিল এবং আমরা সব সময় ঐক্যবদ্ধই থাকবো।’

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...