The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৭৯ বছরের বৃদ্ধ হাইস্কুল পরীক্ষায় পাস করলেন

হাইস্কুল পরীক্ষায় ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন দানি রাম নামের ওই বৃদ্ধ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ লেখাপড়ার কোনো বয়স হয় না। সেই কথাটি এবার নতুন করে প্রমাণ করলেন ৭৯ বছরের বৃদ্ধ দানি রাম নামে জনৈক ব্যক্তি। তিনি এই বসয়ে এসেও হাইস্কুল পরীক্ষায় পাস করলেন!

৭৯ বছরের বৃদ্ধ হাইস্কুল পরীক্ষায় পাস করলেন 1

বলা হয়ে থাকে যে, শেখার কোনও বয়স নেই। সেই শেখা যে বয়সেই হোক তাতে কিছু যায় আসে না। আর সেই বয়স যে বাধা নয় তা প্রমাণ করেছেন ভারতের ৭৯ বছরের এক অবসরপ্রাপ্ত সুবেদার-মেজর দানি রাম। হাইস্কুল পরীক্ষায় ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন দানি রাম নামের ওই বৃদ্ধ।

ওই বৃদ্ধ দানি রামের বাড়ি ভারতের উত্তরাখণ্ডের খাটিমা শহরে। দানি রামের বহুদিনের ইচ্ছে ছিল, অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট হিসেবে অবসর গ্রহণ করা। তবে পড়াশোনা সম্পূর্ণ করতে না পারায় তার সে ইচ্ছে পূরণ হয়নি।

দানি রাম জানান, ‘মাধ্যমিকের পড়া সম্পূর্ণ করতে পারিনি। তাই অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট পদে প্রোমোশনও হয়নি। পড়াশোনা সম্পূর্ণ না করায় আমার পদোন্নতি ঘটেনি। ওই সময়ই আমি পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার কথা ভাবি।’

তবে তিনি কেবল ভেবেই বসে থাকেননি, ভর্তি হয়েছিলেন এলাকার একটি হাইস্কুলে। সেখান থেকেই ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে হাইস্কুল পাস করলেন এবার। এতোদিনে হাইস্কুলের পড়া সম্পূর্ণ হলো তার। এই বিষয়টি নিয়ে তিনি দারুণ খুশিও। তার মেয়ে এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে শেষ বর্ষের (এমএ) ছাত্রী। তার মেয়েও বাবাকে হাইস্কুলের পরীক্ষায় পাস করার ক্ষেত্রে যথেষ্ট অনুপ্রেরণা ও সহযোগিতা করেছেন।

শিক্ষার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে দানি রাম বলেছেন যে, জীবনে সফল হতে হলে প্রত্যেকের পড়াশোনা সম্পূর্ণ করা দরকার। তিনি মনে করেন, জ্ঞান থাকলে তবেই সফল হওয়া সম্ভব। শিক্ষা শুধু জীবনে সাফল্যই নয়, পাশাপাশি দেশকেও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। এ কথা ভেবেই শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এই বৃদ্ধ দানি রাম।

Loading...