The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এক ভাগ্যবান ব্যক্তির গল্প!

একটি লটারির টিকিট কিনে ৫ লাখ ইউরো মূল্যের ফার্ম হাউস কিংবা খামার বাড়ি পেলেন ২৩ বছর বয়সী জেম্মা নিকলিন নামে জনৈক ব্যক্তি!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কখন কার ভাগ্য ফিরতে তা জোর দিয়ে বলা যাবে না। তবে ভাগ্য যদি একবার ফেরে তাহলে রাতারাতি তার জীবন মান পাল্টে যাবে সেটি নিশ্চিত করেই বলা যায়। এমনই ঘটনা ঘটেছে এক ব্যক্তির কপালে!

এক ভাগ্যবান ব্যক্তির গল্প! 1

কখন কার ভাগ্য ফিরতে তা জোর দিয়ে বলা যাবে না। তবে ভাগ্য যদি একবার ফেরে তাহলে রাতারাতি তার জীবন মান পাল্টে যাবে সেটি নিশ্চিত করেই বলা যায়। এমনই ঘটনা ঘটেছে এক ব্যক্তির কপালে!

মাত্র দুই ইউরোর (বাংলাদেশী টাকায় ১৮৩ টাকা) একটি লটারির টিকিট কিনে ৫ লাখ ইউরো মূল্যের ফার্ম হাউস কিংবা খামার বাড়ি পেলেন ২৩ বছর বয়সী জেম্মা নিকলিন নামে জনৈক ব্যক্তি! বাংলাদেশী মুদ্রায় ওই বাড়ির দাম ৪ কোটি ৫৮ লাখ টাকা! বাবা-মায়ের সঙ্গে তিনি বসবাস করেন যুক্তরাজ্যের ওয়েস্ট মিডল্যান্ডের বিলস্টোনে।

এই পুরস্কার জিতে নিজের উচ্ছ্বাস গোপন করেননি জেম্মা নিকলিন। সেই বাড়িটি শিফট করার পরিকল্পনাও শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন ওই ব্যক্তি।

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে জানা গেছে, ওই বাড়ির মালিক বাড়িটি বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েও বেঁচতে পারছিলেন না। শেষে লটারির ব্যবস্থা করেন তিনি। তাতেই ভাগ্য খুুলে যায় জেম্মা নিকলিনের। যুক্তরাজ্যের লুডনোর শ্রপশায়ারের ওই খামার বাড়িটি পূর্বেই পছন্দ করেছিলেন জেম্মা নিকলিন। এটি জেতার জন্য জেম্মার বাবা-মা এবং বন্ধু- সবাই লটারির টিকেট কেটেছিলেন। আর তার বাবা-মা কেটেছিলেন ১০টি টিকেট। তার এক বন্ধু কিনেছিলেন ৫টি টিকেট। জেম্মা নিকলিন কেটেছিলেন মাত্র দু’টি টিকেট। তাতেই খুলে গেছে তার ভাগ্য। এক বিশাল লটারি পেয়ে তিনি আত্মহারা। সত্যিই ভাগ্য বটে!

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...