The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

অভিনেত্রী মারজান জেনিফা অগ্রীম বেতন দিয়ে কর্মীদের ছুটি দিলেন

ইতিমধ্যে খালি হয়ে গেছে ঢাকার অধিকাংশ এলাকা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ভুগছে পুরো বিশ্ব। ইতিমধ্যেই ভাইরাসটি হানা দিয়েছে বাংলাদেশেও। করোনার কারণে অভিনেত্রী মারজান জেনিফা অগ্রীম বেতন দিয়ে কর্মীদের ছুটি দিলেন।

অভিনেত্রী মারজান জেনিফা অগ্রীম বেতন দিয়ে কর্মীদের ছুটি দিলেন 1

দেশের সার্বিক করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে আমাদের সরকার। সেইসঙ্গে সবাইকে নিরাপদে থাকতে ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই সরকারি-বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান ১০ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এমতাবস্থায় সকল শহর হতে বিশেষ করে রাজধানী ঢাকা হতে বাড়ি ফেরার হিড়িক পড়ে গেছে। ইতিমধ্যে খালি হয়ে গেছে ঢাকার অধিকাংশ এলাকা। একাকি সময়গুলো পরিবারের সঙ্গে নিরাপদে কাটাতেই এমন ঘরমুখী জনস্রোত দেখা যায়।

এদিকে সমস্ত কাজকর্ম বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে দুশ্চিন্তায় পড়েছে শ্রমিক-কর্মীসহ খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষরা। তবে সমাজের বিত্তবানদের অনেকেই এই সময় যার যার অবস্থান থেকে সাধ্যমত নিম্নবিত্ত এবং কর্মীদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। বেশ কয়েকজন বাড়ির মালিকও তাদের ভাড়াটিয়াদের ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছেন। চলচ্চিত্র শিল্পীরাও এবার সেই দলে যোগ দিয়েছেন।

মুসাফির খ্যাত নায়িকা মারজান জেনিফাও এবার মানবতার এক দৃষ্টান্ত দেখালেন। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি নিজের ব্যবসা নিয়ে এখন বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। ঢাকা ও চট্টগ্রামে ‘মারজান জেনিফা: দ্য ফ্যাশান লাউঞ্জ’ নামে তার দুটি প্রতিষ্ঠানও রয়েছে। এছাড়াও অনলাইনে ‘এমজে ফ্যাশান’ নামেও একটি অনলাইন আউটলেট রয়েছে তার। প্রায় ২০জন কর্মী এই প্রতিষ্ঠানগুলো পরিচালনা করে থাকেন।

তবে দেশের এই সঙ্কটের সময় তিনি কর্মীদের ছুটি দিয়ে বাড়ি ফিরে যেতে বলেছেন। সেইসঙ্গে তাদের একমাসের অগ্রীম বেতনও পরিশোধ করে দিয়েছেন তিনি।

টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে মুসাফির খ্যাত নায়িকা মারজান জানিয়েছেন, “দেশের এমন পরিস্থিতিতে আমরা নিজেরাই আতঙ্কিত। সেক্ষেত্রে যাদের নিরলস পরিশ্রমে আমার প্রতিষ্ঠানগুলি টিকে আছে, তাদের নিরাপত্তার কথা আমাদের সকলকেই অবশ্যই ভাবতে হবে। তাই তাদেরকে আমি ছুটি দিয়ে দিয়েছি। পরিবারের সবাইকে নিয়ে তাদের নিরাপদে থাকতে বলেছি। তবে দীর্ঘদিন ঘরে বন্দী থাকলে পেট তো লকডাউন করা যাবে না। তাই এদিকটা চিন্তা করেই ওদের একমাসের বেতনও অগ্রীম পরিশোধ করে দিয়েছি।”

দরিদ্রদের সাহায্য করার পরিকল্পনা জানিয়ে তিনি আরও বলেছেন, “রাজধানীর হতদরিদ্রদের কথা চিন্তা করে অন্ততঃ একশত প্যাকেট সাহায্য সামগ্রী বিলি করার পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছি। ইতিমধ্যেই কেনাকাটাও করা হয়েছে।” এই সময় দেশের গরীব-খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানান নায়িকা মারজান।

দেশবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, এমন সময় দেশ, নিজের এবং পরিবারের কথা চিন্তা করে খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া ঘর হতে বের না হওয়ার অনুরোধ করছি। সেইসঙ্গে নাকে-মুখে-চোখে স্পর্শ করার আগে অবশ্যই সবাই সাবান দিয়ে ভালো করে হাত ধুয়ে নিবেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...