The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

জঙ্গলের ছড়িয়ে আছে ১২০০ কোটি টাকা!‌ কেও নেই সে টাকা কুড়িয়ে নেবার!

রাস্তার ধারে অনেকসময় সামান্য দু'এক টাকার কয়েন পড়ে গেলেও পরে আর তার খোঁজ পাওয়া যায় না

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ জঙ্গলের মধ্যে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে ১২০০ কোটি টাকা!‌ লকডাউন হওয়ার কারণে সেই টাকা কুড়িয়ে নেওয়ার কোনো মানুষ নাই!

জঙ্গলের ছড়িয়ে আছে ১২০০ কোটি টাকা!‌ কেও নেই সে টাকা কুড়িয়ে নেবার! 1

রাস্তার ধারে অনেকসময় সামান্য দু’এক টাকার কয়েন পড়ে গেলেও পরে আর তার খোঁজ পাওয়া যায় না। এখানে কি না পড়ে রয়েছে বান্ডিলকে বান্ডিল নোট। সেই টাকা কুড়িয়ে নেওয়ার মতো মানুষ নেই।

রাশিয়ার মস্কো ১৬০ কিলোমিটার দূরে ভ্লাদিমির বলে এক বিখ্যাত শহর রয়েছে। সেখানেই এই বিপুল পরিমাণ টাকা পড়ে রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সেই টাকার পরিমাণ হলো প্রায় ১ বিলিয়ন রুবেল, বাংলাদেশী টাকার অর্থে যার পরিমাণ প্রায় ২০০ কোটি টাকা। এই প্রথম ঘটনা এটি তা নয়, কয়েকদিন পূর্বেই এমনই বিপুল পরিমাণ অর্থ সেন্ট পিটার্সবার্গ শহরের কিছু দূরবর্তী অংশ হতে খুঁজে পেয়েছিলেন কিছু মানুষ। তবে রাশিয়ায় এভাবে টাকা পড়ে থাকছে কেনো?‌ কেও সেই টাকা তুলেও নিচ্ছেন না কেনো?‌

এমনিতেই করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে এখন বিশ্বজুড়ে প্রায় সমস্ত দেশ লকডাউন চলছে। সেই লকডাউনের মধ্যেই এই বিপুল পরিমাণ টাকার সন্ধান পাওয়া যায়। তবে এই টাকা কেও ব্যবহার করতে পারবেন না। কারণ হলো এগুলি রাশিয়ায় ১৯৬১ হতে ১৯৯১ সালের মধ্যের চালু থাকা অর্থ। সেই সময়কার টাকা এখন সে দেশে চালু নেই। সেই কারণেই এই টাকার স্তুপ শুধু মাটিতে পড়ে রয়েছে। কারণ হলো এই টাকার কোনও দামই নেই। যেখানে এটি পড়ে রয়েছে, সেই জায়গাটি যুদ্ধের সময় মিসাইল ছুঁড়তে ব্যবহার করা হতো। মনে করা হচ্ছে, বন্যার কারণে এই নোটের তোড়া অনেক দূর থেকে ভেসে এখানে চলে এসেছিল। তারপরই পড়ে ছিল, কেও কোনো খোঁজ পাননি।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...