The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

করোনায় সন্তানদের সামাল দিতে মায়ের অভিনব কৌশল!

করোনার কারণে এক মা বাসায় বসে অফিসের কাজ চালাচ্ছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পুরো বিশ্বে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ঘরে সময় কাটাচ্ছেন অধিকাংশ মানুষ। এখন যারা অফিসে যেতে পারছেন না তাদের আবার অনেকেই ঘরে বসেই অফিসের কাজ করছেন।

করোনায় সন্তানদের সামাল দিতে মায়ের অভিনব কৌশল! 1

তবে বাড়িতে থাকলে বাবা-মাকেই সন্তানদের সময় দিতে হয়, নানা আবদারও মেটাতে হয়। দিতে হয় হাজারো রকমের প্রশ্নের উত্তর।

করোনার কারণে এক মা বাসায় বসে অফিসের কাজ চালাচ্ছেন। বাড়িতে বসে অফিসের কাজ করার সময় সন্তানরা যেনো তাকে বিরক্ত না করে তার উপায় খুঁজে বের করেছেন ওই নারী কর্মী।

সোশ্যাল মিডিয়া রেডিইটে ওই মায়ের হাতে লেখা সাদা কাগজের একটি ছবি সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে যে, সাদা কাগজে সন্তানদের উদ্দেশে কিছু লিখে দরজায় আটকে দিয়েছেন ওই নারী। কাগজে তিনি লিখে রেখেছেন যে, ‘মা সাড়ে ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত মিটিংয়ে রয়েছে। রুমে ঢুকবে না।’

শুধু তাই নয়, সন্তানদের সম্ভাব্য প্রশ্নের উত্তরও তিনি লিখে দিয়েছেন ওই কাগজে। কারণ অনেক সময় দেখা যায় যে, শিশুরা খেলনা কিংবা অন্য জিনিসপত্র কোথায় রাখে, তা মাকেই খুঁজে দিতে হয়। তাই সেই সব সম্ভাব্য প্রশ্নের উত্তরও লেখা ছিল ওই কাগজটিতে।

সেই সঙ্গে রাত্রে কী খাওয়া হবে তিনি এই প্রশ্নের উত্তরও লিখে রেখেছেন। যদিও রাত্রে কী খাওয়া হবে, তা মা নিজেও জানেন না বলে লিখে দিয়েছেন ওই কাগজটিতে।

এমনকি আলাদা করে একটি বক্সে শুধুমাত্র একটি ‘না’ লিখে রেখেছেন, অর্থাৎ বাকি যা প্রশ্ন শিশুরা করতে পারে, তিনি তার উত্তর জানেন না বলে না লিখেছেন। মায়ের এমন কাণ্ডে মজার মন্তব্য করছেন তাবোত দুনিয়ার নেটিজেনরা।

এটি দেখার পর কমেন্টে একজন লিখেছেন, আমার সব থেকে ওই ‘না’ উত্তরটি পছন্দ হয়েছে।

ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকার এক খবরে জানা গেছে, মরেডিইটের এই ছবিটি সোমবার পোস্ট করা হয়। ইতিমধ্যেই প্রায় ৬৫ হাজার লাইক পেয়েছে। সেই সঙ্গে কমেন্টও পড়ছে প্রায় ৭০০ এর কিছু বেশি।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...