The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ক্ষোভে সংবাদ সম্মেলনই বন্ধ করে দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ করোনা চিকিৎসায় শরীরে জীবাণুনাশক প্রয়োগের উদ্ভট পরামর্শদানের পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষোভে সংবাদ সম্মেলনই বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন!

ক্ষোভে সংবাদ সম্মেলনই বন্ধ করে দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প! 1

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে হোয়াইট হাউসে প্রতিদিন সংবাদ সম্মেলন করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে গত বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে করোনা চিকিৎসায় শরীরে জীবাণুনাশক প্রয়োগের উদ্ভট পরামর্শ দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতে করে বিশেষজ্ঞদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন ট্রাম্প।

তারপর থেকেই গত দুদিন ধরে গণমাধ্যম এড়িয়ে চলছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। হোয়াইট হাউসে করোনা নিয়ে আর কোনো সংবাদ সম্মেলনই করেননি ট্রাম্প।

এর মধ্যেই শনিবার এক টুইটে সংবাদ সম্মেলনকে নিজের ‘সময় নষ্ট’ বলে উল্লেখ করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, হোয়াইট হাউসে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলন বন্ধ করার কথা চিন্তাও করছেন ট্রাম্প। কারণ এসব সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের সঙ্গে রীতিমতো কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ ছাড়াও মহামারী নিয়ন্ত্রণ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে ক্ষিপ্তও হয়ে ওঠেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এই বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইটারে লিখেছেন, সত্য প্রকাশ না করে মিডিয়াগুলো যখন শুধু প্রশ্নবানে জর্জরিত করে, তখন হোয়াইট হাউসে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনের অর্থই বা কী? এতে মিডিয়াগুলো রেকর্ড রেটিং পায়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ ভুয়া সংবাদ ছাড়া অন্য কিছুই পায় না। এটি সময় নষ্ট ও পণ্ডশ্রম নয় কী?’

এদিকে দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচার দলই তাকে সংবাদ সম্মেলনে যেতে নিষেধ করেছেন। কারণ হলো সাংবাদিকদের প্রশ্নে প্রেসিডেন্ট জর্জরিত হতে পারেন এবং তার প্রভাব পড়তে পারে আগামী নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনেও। তাই এখন থেকেই নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তাকে নাও দেখা যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...