The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

প্রমাণ রয়েছে উহানের ল্যাব হতেই ছড়িয়েছে করোনা: ডোনাল্ড ট্রাম্প

কিসের ভিত্তিতে চীন হতেই এই ভাইরাস ছড়ানো হয়েছে বলে দাবি করছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ করোনা ভাইরাস মহামারী আকারে বিশ্বময় ছড়ানোর জন্য চীনকে দায়ী করে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার বলেছেন, উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি থেকেই বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড ১৯। এর সপক্ষে তার কাছে অকাট্য প্রমাণ রয়েছে বলেও দাবি তার।

প্রমাণ রয়েছে উহানের ল্যাব হতেই ছড়িয়েছে করোনা: ডোনাল্ড ট্রাম্প 1

ওভাল অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে প্রশ্ন করা হয় যে, তিনি কিসের ভিত্তিতে চীন হতেই এই ভাইরাস ছড়ানো হয়েছে বলে দাবি করছেন? এর জবাবে ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন তার কাছে এমন কিছু প্রমাণ রয়েছে যা নিশ্চিত করে যে, কোভিড-১৯ এর উৎস চীনের উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিই।

উত্তরে ট্রাম্প বলেন, ‘হ্যাঁ আমার কাছে এর প্রমাণ আছে’।

সাংবাদিকরা কী প্রমাণ রয়েছে তা জানতে চাইলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন. ‘সেসব কিছু আমি আপনাদের সামনে বলতে পারি না।’ করোনা ছড়ানোর জন্য ক্ষতিপূরণ চাইবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, চীনের থেকে শুধু ক্ষতিপূরণ আদায় করাই নয়, আরও কঠিন পদক্ষেপ নিতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

ইতিমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চীনের ক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক বহুগুণ বাড়িয়ে দেওয়ার কথা ভাবছে। পাশাপাশি ওই দেশ এমনও হুঁশিয়ারি দিয়েছে যে, চীন যদি যুক্তরাষ্ট্রের শর্ত মেনে না চলে তাহলে তাদের সঙ্গে সব ধরণের বাণিজ্য চুক্তিও শেষ করে দেবে ওই দেশটি।

ডোনাল্ড ট্রাম্প আরও বলেন, আগামী নভেম্বরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাকে হারানর জন্যে চীন যেকোনো ধরনের পথই অবলম্বন করতে পারে। চীন করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে যে ধরনের আচরণ করছে, তারই প্রমাণ যে এর পিছনে তাদের হাত রয়েছে।

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ বিশ্বের ২১২টি দেশ এবং অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনায় আক্রান্ত এবং মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের ধারে-কাছেও নেই অন্য কোনো দেশ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে এই প্রাণঘাতি ভাইরাসটি। করোনার প্রাণহানি এবং আক্রান্তের পরিসংখ্যান রাখা আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য মতে, বৃহস্পতিবার দেশটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ হাজার ৮২৯। অপরদিকে ওই একদিনেই মারা গেছে ২ হাজার ২০১ জন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...