The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কোভিড-১৯ পুঁজি করে স্ক্যামার ঠেকাতে গুগলের নতুন প্রকল্প

গ্রাহকের আতঙ্ক ও অনিশ্চয়তাকে কাজে লাগাচ্ছে স্ক্যামাররা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কোভিড-১৯ মহামারীকে পুঁজি করে গ্রাহককে ফাঁদে ফেলে বা স্ক্যাম ছড়িয়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা ক্রমেই বাড়ছে। এই স্ক্যামার ঠেকাতে গুগল নতুন প্রকল্প হাতে নিলো।

কোভিড-১৯ পুঁজি করে স্ক্যামার ঠেকাতে গুগলের নতুন প্রকল্প 1

গ্রাহকের আতঙ্ক ও অনিশ্চয়তাকে কাজে লাগাচ্ছে স্ক্যামাররা। স্ক্যামারদেরকে শনাক্ত এবং প্রতিহত করতে সম্প্রতি ‘স্ক্যাম স্পটার’ নামে নতুন একটি প্রকল্প চালু করেছে গুগল।

গ্রাহক যখন সন্দেহজনক কোনো কল কিংবা বার্তা পাবেন সেটি স্ক্যাম কি না, তা শনাক্ত করতে বিশেষজ্ঞরা যে পরামর্শ দিয়ে থাকেন, সেগুলো সহজ করে ৩টি নিয়মের মাধ্যমে প্রকাশ করেছে এই প্রকল্পটি।

নিয়ম৩টি হলো, “এর গতি কমিয়ে দিন, শনাক্ত করুন এবং থামিয়ে দিন! কাওকে পাঠাবেন না।” -খবর আইএএনএস-এর।

ফেডারেল ট্রেড কমিশনের (এফটিসি) এক তথ্যমতে, ২০১৯ সালে স্ক্যামের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছ থেকে ১৯০ কোটি মার্কিন ডলার হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগও এসেছে।

আইএএনএস বলছে যে, জরুরি ভিত্তিতে বকেয়া কর পরিশোধে, ভুয়া প্রতিযোগিতাতে বিজয়ী বা গিফট কার্ডের সাজানো গল্প শুনিয়ে প্রতি মিনিটেই গ্রাহকের ওয়ালেট ও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হতে হাপিশ হচ্ছে ৩ হাজার ৬শ’ মার্কিন ডলার।”

গুগল বলছে যে, “বেশি চাপ দিয়ে কোনো ফোন কল কিংবা উত্তেজনাপূর্ণ বার্তা অনেকের বিবেচনাকেই ফাঁকি দিতে পারে, বিশেষভাবে গ্রাহক যখন মানসিকভাবে ভঙ্গুর অবস্থায় রয়েছেন তখন।” স্ক্যামস্পটার ডটর্গ ডোমেইনে নতুন একটি ওয়েবসাইট ইতিমধ্যেই চালু করেছে গুগল।

“আমরা যদি শিখতে পারি কীভাবে দুষ্কৃতিকারীদের শনাক্ত করতে হবে, আমরা এই সময়গুলো মূল্যবান মুহূর্তের জন্য কাজে লাগাতে পারবো তাতে সন্দেহ নেই।”

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...