The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আরব আমিরাত মঙ্গলগ্রহে মহাকাশযান পাঠাচ্ছে

পাঁচ বছরের মতো সময় নিয়ে একটি মহাকাশযান তৈরি করেছে আরব আমিরাত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আরব বিশ্বে এই প্রথমবারের মতো মঙ্গলগ্রহে মানবহীন মহাকাশ যান পাঠাচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। মানবহীন এই মহাকাশযানটির নাম দেওয়া হলো ‘আমাল’। আরবিতে যার অর্থ হলো ‘আশা’।

আরব আমিরাত মঙ্গলগ্রহে মহাকাশযান পাঠাচ্ছে 1

পাঁচ বছরের মতো সময় নিয়ে একটি মহাকাশযান তৈরি করেছে আরব আমিরাত। যাতে জ্বালানি তেল ভর্তি করা শুরু হয়ে যাবে আগামী সপ্তাহে।

ইতিপূর্বে প্রথম আরব হিসেবে মহাকাশে গিয়েছিলেন সৌদি আরবের যুবরাজ সুলতান বিন সালমান আল-সদ। ১৯৮৫ সালে মার্কিন একটি মহাকাশযানে করে যান তিনি।
সবকিছুই ঠিকঠাক গেলে ৪৯৩ মিলিয়ন কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত মঙ্গলগ্রহে পৌঁছাতে মহাকাশযানটির সময় লাগবে আনুমানিক ৭ মাসের মতো। মঙ্গলগ্রহের এক বছর হলো ৬৮৭ দিনে। এই পুরো সময় ধরেই মহাকাশযানটি মঙ্গলগ্রহের কক্ষপথ প্রদক্ষিণ করবে। মঙ্গলগ্রহেরে কক্ষপথ একবার ঘুরতে সময় লাগে ৫৫ ঘণ্টা।

গ্রহের চারিদিকে ঘুরে ঘুরে গোলাপি রঙের এই গ্রহটি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহও করবে আমাল। এই প্রকল্পের পরিচালক সারাহ আল আমিরি এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন যে, দেশটির তরুণ বিজ্ঞানীদের জন্য এই মিশন ‘স্পেস ইঞ্জিনিয়ারিং’ পেশায় যুক্ত হওয়ার দ্বার উন্মুক্ত করবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আসছে ১৪ জুলাই জাপানের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থিত দ্বিপ তানেগাশিমা হতে এই মহাকাশযানটি উৎক্ষেপণ করার কথা রয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে প্রকল্পের সঙ্গে সংযুক্ত প্রকৌশলীদের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়েছে। তাই এই যাত্রা ইতিমধ্যেই একবার পিছিয়ে গেছে।

জাপানিজ ‘রকেট’ দ্বারা চালিত এই মহাকাশযানটিতে তিন ধরনের ‘সেন্সর’ থাকবে। যার প্রধান কাজ হবে মঙ্গলগ্রহের জটিল বায়ুমণ্ডল পরিমাপ করা। মহাকাশযানটিতে খুব শক্তিশালী ‘রেজুলুশন’ সম্বলিত একটি ‘মাল্টিব্যান্ড’ ক্যামেরাও থাকবে।

যা মূলত সূক্ষ্ম বস্তুর ছবি তুলতে সক্ষম। গ্রহটির বায়ুমণ্ডলের উপরিভাগ এবং নিম্নভাগ পরিমাপ করার জন্য থাকবে একটি ‘ইনফ্রারেড স্পেকটোমিটার’। যা তৈরি করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটি। তৃতীয় আরেকটি সেন্সর গ্রহটির অক্সিজেন এবং হাইড্রোজেন মাত্রা পরিমাপ করবে।

সারাহ আল আমিরি বলেছেন যে, এই মিশনের অন্যতম কাজই হলো পানি তৈরিতে দরকার এই দুটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান কেনো মঙ্গলগ্রহের বায়ুমণ্ডলে থাকতে পারছে না তা বোঝার চেষ্টাও করা।

যুক্তরাজ্যের সায়েন্স মিউজিয়াম গ্রুপের পরিচালক স্যার ইয়ান ব্ল্যাচফোর্ড বলেছেন, “এর পূর্বে যতো মহাকাশযান মঙ্গলগ্রহে পাঠানো হয়েছে সেগুলো ভূতত্ত্বের দিকে মনোযোগ দিয়ে কাজ করছে। তবে এবার মঙ্গলগ্রহের জলবায়ু সম্পর্কে একটি সামগ্রিক চিত্রও পাওয়া যাবে।”

মহাকাশবিজ্ঞানে আরব আমিরাতের যোগসূত্র এটিই নতুন নয়। ইতিপূর্বে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করার জন্য একটি রকেট পাঠিয়েছিল আরব আমিরাত। গত বছর রাশিয়ান একটি মহাকাশযানে করে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে গিয়েছিলেন আমিরাতের প্রথম এক নাগরিক।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...