The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ছাগলকে কামড়ানোর শাস্তি স্বরূপ ৪০ কুকুরকে বিষ খাইয়ে হত্যা!

কেরালায় অন্তঃসত্ত্বা হাতিকে বিস্ফোরক ভরা আনারস খাইয়ে খুন করা, জোড়া বাঘকে হত্যা, গরু ও শিয়ালকে বিস্ফোরক খাইয়ে হত্যার ঘটনা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন একটি ঘটনা ঘটেছে ভারত। যেনো মানবিকতা ভুলে এখন পশুহত্যার নেশায় ডুবেছে দেশটির কতিপয় ব্যক্তি। ছাগলকে কামড়ানোর শাস্তি স্বরূপ ৪০ কুকুরকে বিষ খাইয়ে হত্যা করা হয়েছে!

ছাগলকে কামড়ানোর শাস্তি স্বরূপ ৪০ কুকুরকে বিষ খাইয়ে হত্যা! 1

ভারতে সাম্প্রতিক সময় বেশ কিছু ঘটনা ঘটেছে। যেমন কেরালায় অন্তঃসত্ত্বা হাতিকে বিস্ফোরক ভরা আনারস খাইয়ে খুন করা, জোড়া বাঘকে হত্যা, গরু ও শিয়ালকে বিস্ফোরক খাইয়ে হত্যার ঘটনায় কেন্দ্র করে বিশ্বজুড়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে সাম্প্রতিক সময়। তবে সেই মর্মান্তিক নিষ্ঠুরতা থেকে কোনো শিক্ষাই গ্রহণ করেনি ভারতবাসী, তার প্রমাণ হলো ৪০টি কুকুরকে বিষ খাইয়ে হত্যার মতো চরম নিষ্ঠুরতার মধ্যদিয়ে।

নিজের পোষা ছাগলকে কামড়েছিল একটি কুকুর৷ প্রতিশোধ নিতে রাস্তার ৪০টি বেওয়ারিশ কুকুরকে বিষ খাইয়ে খুন করলেন ভারতের জনৈক ব্যক্তি৷ ওড়িশার কটকের চৌধওর থানার মহঙ্গা এলাকায় ঘটে এই ঘটনাটি৷

বহ্মানন্দ মল্লিক নামে ওই ব্যক্তি তার পোষা ছাগলের ওপর হওয়া হামলায় খুব ক্ষেপে যান৷ এরপর ভারত মল্লিকের সঙ্গে বসে ষড়যন্ত্র করেন৷ দু’জনে মিলে ঠিক করেন বিষ খাইয়ে মারবেন গ্রামের সব কুকুর৷ যেমন ভাবা ঠিক তেমন কাজ৷

ছোট ছোট মাংসের টুকরোর সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে দেন গ্রামের সবগুলো কুকুরকে৷ বিষ খেয়ে যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে মরেছে কুকুরগুলো৷ খুবই বেদনাদায়ক ছিল সেই দৃশ্যটি- বলছেন জনৈক গ্রামবাসী৷

ইতিমধ্যে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে স্থানীয় পুলিশ৷ অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে৷ তাদের খোঁজা হচ্ছে৷

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...