The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ভারতের শঙ্করের মুখে ৩ লাখ রুপির সোনার মাস্ক!

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পুনে জেলায়। সেখানকার এক বাসিন্দা শঙ্কর কুরাদে প্রায় ৩ লাখ রুপি খরচ করে একটি সোনার মাস্ক তৈরি করে মুখে পরছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর বিশ্বের অনেক কিছুই পাল্টে গেছে। মানুষকে এখন সব সময় পরতে হচ্ছে মাস্ক। তবে এবার নতুন খবর হলো জনৈক ব্যক্তি মুখে পরছেন ৩ লাখ রুপি দিয়ে বানানো সোনার মাস্ক!

ভারতের শঙ্করের মুখে ৩ লাখ রুপির সোনার মাস্ক! 1

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পুনে জেলায়। সেখানকার এক বাসিন্দা শঙ্কর কুরাদে প্রায় ৩ লাখ রুপি খরচ করে একটি সোনার মাস্ক তৈরি করে মুখে পরছেন। তবে তার এই মাস্ক দেখে অনেকেই প্রশ্ন করেছেন, তিনি কিভাবে নি:শ্বাস নিচ্ছেন? তবে তিনি প্রতি উত্তরে জানিয়েছেন, এই মাস্কে শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে তার কোনো কষ্টও হচ্ছে না!

শঙ্কর কুরাদে এই বিষয়ে বলেছেন, ‘মাস্কটি খুবই পাতলা। তাই নি:শ্বাস নিতে কষ্ট হয় না। করোনা প্রতিরোধে একটি কার্যকরী হবে কি না, সেই বিষয়ে অবশ্য আমি নিজেও নিশ্চিত নই।’

জানা গেছে, সোনার গহনার প্রতি শঙ্করের ভালোবাসা এবারই নতুন কিছু নয়। তার হাত এবং গলায় সোনার তৈরি অনেক কিছুই রয়েছে। তবে প্রশ্ন হলো সোনার মাস্কের ভাবনা তার কীভাবে এলো?

শঙ্কর কুরাদে এনডিটিভিকে তার এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমি একজনকে রুপার মাস্ক পরতে দেখেছি। তখন সোনার মাস্কের আইডিয়া আমার মাথায় আসে। এক সপ্তাহ পূর্বে এই মাস্কটি হাতে পেয়েছি। আমার পরিবারের সবাই স্বর্ণ ভালোবাসে, তারা যদি চান, তাদেরকেও এই মাস্ক বানিয়ে দেবো।’

ছেলেবেলা থেকে স্বর্ণের প্রেমে পড়া শঙ্কর কুরাদের সব আঙুলেই সোনার আংটি রয়েছে। তার গলায় রয়েছে বিশাল চেইন। হাতেও ব্রেসলেট রয়েছে। সোনার প্রতি তার যেনো এক অঘোম ভালোবাসা রয়েছে তার। সেজন্য সব কিছুই সোনায় মুড়িয়ে রাখতে চান স্বর্ণ পাগল এই ব্যক্তি শঙ্কর কুরাদে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...