The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

স্কুলগুলোকে আরেকটি রাজনৈতিক ‘ফুটবল’ বানানো ঠিক হবে না- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

মহামারী শুরু হওয়ার পর গত সাড়ে ৬ মাসের মধ্যে এতে আক্রান্ত হয়ে ৫ লাখ ৭২ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটেছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি বিষয়ক প্রধান বলেছেন যে, দেশগুলোর উচিত হবে না স্কুলগুলোকে আরেকটি রাজনৈতিক ফুটবলে পরিণত করার। যখনই ভাইরাস দমন হবে, তখনই স্কুলগুলো আবার খুলে দেওয়া উচিত হবে।

স্কুলগুলোকে আরেকটি রাজনৈতিক ‘ফুটবল’ বানানো ঠিক হবে না- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 1

এদিকে বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সোমবার ১ কোটি ৩০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের হিসাবে, কেবল পাঁচ দিনে ১০ লাখের বেশি মানুষ এই ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন।

মহামারী শুরু হওয়ার পর গত সাড়ে ৬ মাসের মধ্যে এতে আক্রান্ত হয়ে ৫ লাখ ৭২ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটেছে। এই বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম গেবরিয়াসুস বলেন, এ পর্যন্ত যতোটা জানি, আমরা আপাতত ‘পুরনো স্বাভাবিকতায়’ ফিরছি না। বিশেষ করে যদি সুরক্ষা পদক্ষেপগুলোর প্রতি অবহেলা করা হয়ে থাকে।

তিনি আরও বলেন যে, যদি স্পষ্টভাষায় বলতে যাই- বহু দেশ ভুল পথে অগ্রসর হচ্ছে। ভাইরাসটি এখন এক নম্বর গণশত্রু হয়ে রয়েছে।

জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান কার্যালয় হতে ভার্চুয়াল সংবাদ ব্রিফিংয়ে তিনি আরও জানান, যদি মৌলিক নীতিগুলো মেনে চলা না হয়, তাহলে এই মহামারীর একমাত্র কাজ হবে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া। এতে করে পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটবে। তবে এভাবে চলতে দেওয়া যায় না।

সরকারি প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে রয়টার্সের বৈশ্বিক টালিতে জানা যায়, দক্ষিণ আমেরিকায় প্রাদুর্ভাব দ্রুতগতিতে বেড়েই চলেছে।

বিশ্বের মোট আক্রান্ত এবং মৃত্যুর অর্ধেকের বেশিই হয়েছে আমেরিকায়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৩৩ লাখেরও বেশি মানুষ করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। দেশটিতে প্রথম দফার সংক্রমণ মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়েছিলো।

অস্ট্রেলিয়ার শহর মেলবোর্ন এবং ইংল্যান্ডের লিসেস্টারের মতো বিভিন্ন স্থানে দ্বিতীয় দফায় লকডাউন বাস্তবায়ন করা হয়। অপরদিকে চীনশাসিত হংকংয়ে যদিও মাত্র দেড় হাজারের মতো মানুষ করোনায় আক্রান্ত, তার পরও সেখানে কঠোরভাবে সামাজিক দূরত্বের পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

তৃতীয় দফায় সংক্রমণের আতঙ্ক হতেই এমন সিদ্ধান্ত্র গ্রহণ করা হয়েছে। ১০ জুলাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একদিনেই ৬৯ হাজার ৭০ জন করোনায় আক্রান্ত হন। এটি এ পর্যন্ত বিশ্বের কোনো দেশে একদিনে আক্রান্তের রেকর্ড। অপরদিকে ব্রাজিলে এ পর্যন্ত ১৮ লাখ ৬০ হাজার মানুষ করোনায় পজিটিভ। আক্রান্তদের মধ্যে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বোলসোনারোও রয়েছেন। দেশটিতে মারা গেছেন অন্তত ৭২ হাজার মানুষ।

গত রবিবার ২৪ ঘণ্টায় ফ্লোরিয়ায় ১৫ হাজার মানুষ এই ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হন। যেটি দক্ষিণ কোরিয়ায় মোট আক্রান্ত রোগীর চেয়েও কিছুটা বেশি। সোমবারও মার্কিন অঙ্গরাজ্যটিতে ১২ হাজার ৬২৪ জনের কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়ে।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪০ রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়ছেই। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং হোয়াইট হাউস কর্মকর্তারা বলেছেন, রোগটি তাদের নিয়ন্ত্রণেই আছে।

এই বিষয়ে দেশটির হাউস স্পিকার ন্যানসি পেলোসি সিএনএনকে বলেন, প্রেসিডেন্ট এবং তার প্রশাসন আমাদের শিশুদের স্বাস্থ্য নিয়ে টালবাহানা করছে। আমরা সকলেই চাই শিশুরা স্কুলে ফিরে যাক, তবে সেটি অবশ্যই নিরাপদ হতে হবে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...