The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ভারতের মন্ত্রী আজব দাবি করলেন: পাঁপড়েই তৈরি হবে অ্যান্টিবডি!

এমন কথা শুনে সত্যিই বিস্মিত হওয়া ছাড়া কোনো উপায় নাই

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতে লাগামহীন বেড়ে চলা মারণ ভাইরাস ঠেকাতে নানা জন নানা মত দিয়ে আসছেন। কেউ গোমূত্র খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন তো কেও নাকে তেল দিয়ে করোনা তাড়ানোর উপায়ও বাতলে দিচ্ছেন। তবে এবার পাঁপড়েই তৈরি হবে অ্যান্টিবডি! এমন এক আজব পরামর্শ দিলেন ভারতের এক মন্ত্রী!

ভারতের মন্ত্রী আজব দাবি করলেন: পাঁপড়েই তৈরি হবে অ্যান্টিবডি! 1

এমন কথা শুনে সত্যিই বিস্মিত হওয়া ছাড়া কোনো উপায় নাই। কারণ করোনা বধের ‘অস্ত্র’ হিসেবে এবার নতুন টোটকা হলো পাঁপড়! মহামারির সংক্রমণ মোকাবেলায় বিশেষ ধরনের পাঁপড় বাজারে এনেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন মেঘওয়াল। তাঁর দাবি হলো, এই পাঁপড় খেলেই শরীরে তৈরি হবে অ্যান্টিবডি। জব্দ হবে করোনার মতো কঠিন ভাইরাস!

আসলে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কতখানি পারদর্শী এই পাঁপড়, তার বিস্তারিত বর্ণনা ওদেন ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর এমন অদ্ভুত দাবির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ‘ভাবিজি পাঁপড়’ নামে ওই পাঁপড়ের উদ্বোধন করার সময় মন্ত্রী অর্জুন মেঘওয়াল বলেন, ‘এই পাঁপড় কোভিড-১৯ মোকাবেলা করতে অত্যন্ত কার্যকরী। মোদি সরকারের আত্মনির্ভর অভিযানে শামিল হয়েই এই পাঁপড় বানানো হয়েছে।’

উল্লেখ্য, বর্তমানে ভারতে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে নভেল করোনা ভাইরাস। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৩ লাখ ছাড়াতে চলেছে। সেইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। ভ্যাকসিন আসার দিনক্ষণ এখনও জানা যায়নি। এমন এক পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এমন দাবিতে বেশ বিরক্ত হয়েছেন নেটিজেনরা। নেটদুনিয়ায় রীতিমতো সমালোচনার ঝড় উঠেছে ওই মন্ত্রীর এমন বক্তব্য নিয়ে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...