The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

নবদম্পতি মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে ৫ মাস বন্দি

নেভিল ক্লিন্টন ও ফিওনা ক্লিন্টনের ২৫ বছরের সংসার৷ ৩টি সন্তানও রয়েছে তাদের

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিয়ে করলেও মধুচন্দ্রিমার ভাগ্য কিন্তু সবার ভাগ্যে জোটে না। নিউজিল্যান্ডের এক নবদম্পতি বিয়েকে স্মরণীয় করতে মধুচন্দ্রিমায় গিয়েছিলেন ফকল্যান্ডে৷ ভাগ্যদোষে বন্দিদশায় কেটেছে ৫টি মাস।

নবদম্পতি মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে ৫ মাস বন্দি 1

নেভিল ক্লিন্টন ও ফিওনা ক্লিন্টনের ২৫ বছরের সংসার৷ ৩টি সন্তানও রয়েছে তাদের৷ তবে ২৫ বছর একসঙ্গে সুখে-শান্তিতে বাস করলেও, ৩ সন্তানের বাবা-মা হলেও এতোদিন বিয়েই করেননি৷ বিয়েতে আস্থা না থাকার কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো তারা। তবে অবশেষে বিয়েটা করেই ফেললেন তারা। ২০২০ সালের লিপইয়ার, অর্থাৎ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২৫ বছরের পুরোনো জুটি গাঁটছড়া বাঁধেন তারা৷ সেদিনই হানিমুন করতে রওনা দিলেন নেভিলের জন্মস্থান ফকল্যান্ডের উদ্দেশ্যে।

শৈশবেই ফকল্যান্ড ছাড়লেও জন্মস্থানের প্রতি দুর্দমনীয় একটা আকর্ষণ ছিল ৫৯ বছর বয়সি নেভিলের৷ সামাজিকভাবে সদ্য স্ত্রী হওয়া ফিওনাও চেয়েছিলেন কয়েকটা দিন চুটিয়ে আনন্দ করবেন সেখানে গিয়ে, তারপর যাবেন ব্রাজিলে। দক্ষিণ আমেরকিার সবচেয়ে আকর্ষণীয় অঞ্চলটা ঘুরে দেখে এরপর ফিরে আসবেন অকল্যান্ডে নিজেদের বাড়িতে৷

তবে ফকল্যান্ডে তাদের পৌঁছাতেই শুরু হয়ে গেলো করোনার ভয়াবহ বিস্তার। শুরু হলো প্রবীণ এক আত্মীয়ার সঙ্গে হতে লকডাউন অবসানের দিন গোনা৷ তাস খেলে, আলবাট্রস ও ডলফিন দেখে দেখে কাটতে লাগলো একের পর এক অনিশ্চয়তায় ভরা দিনগুলো৷ তবে তাদের ফিরতে তো হবেই। কিন্তু ফিরবেন কিভাবে? অবশেষে ভাবলেন মাছধরা নৌকায় চড়েই ফিরবেন নিজ বাড়িতে। এক মাসেরও বেশি সময় আর্জেন্টিনা হতে ৫০০ কিলোমিটার দূরের ফকল্যান্ড হতে আটলান্টিকের স্রোত ভেঙে ৯,২০০ কিলোমিটার (৫০০০ নটিক্যাল মাইল) পেরিয়ে নিজের শহর অকল্যান্ডে ফিরলেন তারা। এ যেনো পুরাই স্বপ্নের মতোই।

তবু ওকরোনার সমস্ত বাধা পেরিয়ে ফিরেছেন তারা সন্তানদের কাছে৷ তবে ফিরেই করোনা পরীক্ষা করাতে হয়েছে৷ তবে সুখবর হলো- সুখি এই দম্পতির কাওকেই করোনা ছুঁতেও পারেনি।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...