The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

সাহসী মা অপহরণকারীর বন্দুক কেড়ে নিয়ে শিশুকে বাঁচালেন

ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের চ্যাম্বলে নামক একটি এলাকায়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ নিজ শিশু সন্তানকে নিয়ে বিকেলে মা বাড়ির বাইরে বের হয়েছিলেন। আচমকা একদল অপহরণকারী গাড়িতে করে এসে স্ট্রোলার (শিশুর বাহন) হতে শিশুটিকে ছিনিয়ে নিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। তবে মা বন্দুক কেড়ে নিয়ে তাদের পরাস্ত করেছেন।

সাহসী মা অপহরণকারীর বন্দুক কেড়ে নিয়ে শিশুকে বাঁচালেন 1

নিজ শিশু সন্তানকে নিয়ে বিকেলে মা বাড়ির বাইরে বের হয়েছিলেন। আচমকা একদল অপহরণকারী গাড়িতে করে এসে স্ট্রোলার (শিশুর বাহন) হতে শিশুটিকে ছিনিয়ে নিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। তবে মা বন্দুক কেড়ে নিয়ে তাদের পরাস্ত করেছেন। পরে পুলিশ এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে।

সিএনএন এর এক খবরে জানা যায়, গত শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের চ্যাম্বলে নামক একটি এলাকায়। স্থানীয় পুলিশ বিভাগের বরাত দিয়ে ওই সাহসী মায়ের অপহৃত শিশুকে উদ্ধার নিয়ে বলা হয়েছে, আটলান্টা থেকে কিছুটা উত্তরপূর্বে এক অ্যাপার্টমেন্টের বাসিন্দা শিশু সন্তানটির বয়স এক বছর, অপহৃত হলেও তার কোনো ক্ষতিই হয়নি।

চ্যাম্বলে পুলিশ বিভাগের দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, অপহরণের শিকার শিশুটির নাম হলো মাতেও মানতুফার-ব্যারেরা। ওইদিন তাদের পাশে অপহরণকারীর গাড়িটি দাঁড়ানোর পর একজন নেমে এসে মায়ের কোমরে বন্দুক ঠেকিয়ে শিশুটিকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এই সময় পাল্টা প্রতিরোধ করে অস্ত্রটি কেড়ে নেন তার মা।

বন্দুক কেড়ে নিয়ে অপহরণকারীকে গুলি করেন তিনি। তবে সেখান থেকে তখন কোনো গুলি বের হচ্ছিল না। এমন সময় দ্বিতীয় একজন অপহরণকারী গাড়ি হতে নেমে আসেন। এসে শিশুটিকে ছিনিয়ে নিয়ে আবার গাড়িতে চলে যান। তবে মা প্রথম নেমে আসা অপহরণকারীর পরিধেয় বস্ত্র ও জুতা আটকে রাখতে সমর্থ হয়।

তারপর অপহরণের ঘটনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে চালু থাকা ‘আম্বার অ্যালার্ট’ বেজে ওঠে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে থাকা গাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে সেই সূত্র ধরে জর্জিয়ার ক্যালোটন হতে দুই অপহরণকারীকে আটক করে। তবে তখনও গাড়ির ভেতরে অপহরণের শিকার এক বছরের শিশুটি থাকায় তাকে অক্ষত উদ্ধার করে পুলিশ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...