The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হোটেলে ‘আটক’ শত শত অভিবাসী শিশু

অভিবাসী ও নাগরিক অধিকার সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন কর্মীকে উদ্ধৃত করে এই তথ্য দিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩টি অঙ্গরাজ্যের ২৫টির বেশি হোটেলে প্রায় কয়েক শত অভিবাসী শিশুকে আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে মার্কিন প্রশাসনের বিরুদ্ধে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হোটেলে ‘আটক’ শত শত অভিবাসী শিশু 1

গতকাল (বৃহস্পতিবার) অভিবাসী ও নাগরিক অধিকার সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন কর্মীকে উদ্ধৃত করে এই তথ্য দিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন।

যাতে বলা হয়, শিশুদেরকে হোটেলে আটকে রেখে সরকারি ঠিকাদার দিয়ে পাহারায় রেখেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার। করোনা ভাইরাসের অজুহাত দিয়ে এই শিশুদের মূলত বন্দি রাখা হয়েছে।

এই বিষয়ে টেক্সাস সিভিল রাইটস প্রজেক্টের সিনিয়র অ্যাটর্নি কার্লা মেরিসল ভার্গাস বলেছেন, ওইসব আটক করে রাখা শিশুদের অধিকাংশই কৃষ্ণাঙ্গ। এই মুহূর্তে বাইরের পৃথিবীর সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক বা যোগাযোগ কিছুই নেই। এমনকি অভিবাসন পদ্ধতিতেও তাদের কোনো রকম অ্যাকসেস নেই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ট্রাম্প প্রশাসনের কয়েকজন কর্মকর্তা এই বিষয়ে জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নীতিমালা অনুসরণ করেই শিশুদের নিরাপদ রাখতে এমন একটি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, আটক করে রাখা এসব শিশুদের মধ্যে একদম কম বয়সী রয়েছে অন্তত ৮০ জন এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক শিশু রয়েছে ৫৭০ জন। ৩টি অঙ্গরাজ্যের ২৫টির বেশি হোটেলে তাদেরকে আটকে রাখা হয়েছে।

বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন এবং আইনজীবীরা অভিযোগ করে বলেছেন যে, শিশুদের সঙ্গে কথা বলতে তাদের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। যে কারণে ভেতরে আসলে কী ঘটছে, সেই বিষয়ে তারা এখনও পুরোপুরিই অজ্ঞ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...