The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বাইডেনের জয়ে বাংলাদেশের যেসব সুযোগ সুবিধা হতে পারে

বাংলাদেশকে দেওয়া জিএসপি কিংবা বিশেষ বাণিজ্য সুবিধা বাইডেন সরকার পুনর্বহাল না করলেও ব্যবসা-বাণিজ্যের আরও বেশ কিছু ক্ষেত্র প্রসারিত হতে পারে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে চলেছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। দেশটিতে ক্ষমতার এই পরিবর্তন অর্থাৎ জো বাইডেন ক্ষমতায় আসায় বাংলাদেশের লাভ হবে নাকি ক্ষতি কী হতে পারে তা নিয়ে জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

বাইডেনের জয়ে বাংলাদেশের যেসব সুযোগ সুবিধা হতে পারে 1

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশকে দেওয়া জিএসপি কিংবা বিশেষ বাণিজ্য সুবিধা বাইডেন সরকার পুনর্বহাল না করলেও ব্যবসা-বাণিজ্যের আরও বেশ কিছু ক্ষেত্র প্রসারিত হতে পারে। তাছাড়াও রোহিঙ্গা সংকট নিরসনেও বাংলাদেশের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের নৈতিক সমর্থন আরও জোরদার হবে বলেই মনে করছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেচেন, ‘ডেমোক্রেটিক পার্টির নীতি মূল্যবোধের সঙ্গে বাংলাদেশ কিছু কিছু ক্ষেত্রে জড়িতও রয়েছে। এই কারণে বাইডেন সরকারের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক পজিটিভই হবে। প্যারিস জলবায়ু চুক্তি, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য, মানবাধিকার এমন আরও নানা ইস্যুতেই বাইডেন সরকারের অবস্থান বেশ বলিষ্ঠ। বাংলাদেশ এ থেকে উপকৃতও হবে।’

বাইডেন সরকার অভিবাসন-বান্ধব হওয়ার কারণে বাংলাদেশ সরাসরি এর সুবিধা পাবে বলেও জানিয়েছেন আব্দুল মোমেন। এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন প্রত্যাশীরাও মনে করছেন যে, উদারনীতির এই সরকার ক্ষমতা গ্রহণ করায় আমেরিকায় বাংলাদেশীদের প্রবেশ ও বসবাসের সুযোগও বাড়বে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যে তিন বছর ধরে বসবাস করছেন বাংলাদেশের কুমিল্লার আসাদ আজিম নামে জনৈক বাসিন্দা। তিনি বলেছেন, এবার সাধারণ নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে আসতেই তিনি সেখানকার অভিবাসীদের দেখেছেন জো বাইডেনের পক্ষেই তাদের দৃঢ় সমর্থন জানাতে।

ডেমোক্র্যাটরা যেহেতু ঐতিহাসিকভাবে উদারনীতিতে বিশ্বাসী তাই বাইডেনের জয়ের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশী অভিবাসীরা সুনির্দিষ্ট কিছু ক্ষেত্রে লাভবান হবে বলে আশা করছেন আসাদ আজিম। তিনি মনে করেন, এ কারণে বাংলাদেশীদের ভিসা দেওয়ার হার যেমন বাড়বে, সেইসঙ্গে ভিসা প্রক্রিয়াও আরও সহজ হবে।

এ ছাড়াও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা নিতে যাওয়া শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পর দেশটিতে কাজের সুযোগ, সেইসঙ্গে নাগরিকত্ব পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়বে বলেও জানিয়েছেন প্রবাসী এই বাংলাদেশী।

ট্রাম্পের শাসনামলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেন্ট ভিসা সুবিধা বন্ধ করে দেওয়া হয়। জো বাইডেনের জয়ের কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন ভিসা পুনরায় চালু হবে ও বহু অভিবাসন প্রত্যাশী আমেরিকায় স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পাবে বলেও আশা করছেন সেখানে যেতে ইচ্ছুক বাংলাদেশীরা।

অপরদিকে যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে ও অবৈধভাবে বসবাস করছেন তাদেরও বৈধতা পাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। এই বিষয়ে সাবেক পররাষ্ট্র সচিব তৌহিদ হোসেন মনে করেন, বাইডেন জয়ী হওয়ায় বাংলাদেশ প্রত্যক্ষ না হলেও পরোক্ষ বেশ কিছু সুবিধা পাবে।

বাইডেন শুরু থেকেই বলে আসছিলেন যে, তিনি প্যারিস চুক্তিও বাস্তবায়ন করবেন। এই বিষয়ে সাবেক এই পররাষ্ট্র সচিব বলেন, বাংলাদেশ যেহেতু জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ও প্রাকৃতিক দুর্যোগপ্রবণ দেশ, সে কারণে বাইডেন ওই চুক্তিতে ফিরলে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে বাংলাদেশের আগের চাইতে বেশি ক্ষতিপূরণ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ট্রাম্প সরকার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও জাতিসংঘকে চাঁদা দেওয়া বন্ধ রেখেছিল, বাইডেন সরকার সেটি পুনরায় চালুর প্রতিশ্রুতি দেওয়ায় বাংলাদেশ পরোক্ষভাবে হলেও আরও সুবিধা পাবে বলে মনে করেন তৌহিদ হোসেন।

জো বাইডেনের জয় নিশ্চিত হওয়ার পর তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিভিন্ন দেশের সরকার এবং রাষ্ট্রপ্রধানরা।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...