The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মোজা পরেই পায়ে দুর্গন্ধ হলে কী করবেন?

যে পদ্ধতিগুলো মেনে চললে আপনার পা কিংবা মোজা থেকে গন্ধ বের হবেনা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শীতই হোক বা গরম হোক অনেকেই মোজা পড়লেই দুর্গন্ধ হয়ে যায়। এমনকি মোজার গন্ধের সঙ্গে পা থেকেও মারাত্মক গন্ধ বের হতে থাকে। মোজা পরেই পায়ে দুর্গন্ধ হলে কী করবেন? বিষয়টি আজ জেনে নিন।

মোজা পরেই পায়ে দুর্গন্ধ হলে কী করবেন? 1

মোজা পরেই পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণে লোকজনের সামনে মান সম্মানেরও হানি হয়। আবার পা ঘেমে গেলেও লোকচক্ষুর ভয়ে জুতা খুলতে পারেন না অনেকেই। যাদের পায়ে এমন দুর্গন্ধ হয় কিছু বিষয় মেনে চললে খুব সহজে এই গন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

যে পদ্ধতিগুলো মেনে চললে আপনার পা কিংবা মোজা থেকে গন্ধ বের হবেনা। নিচে সেই বিষয়গুলো নিয়েই আলোচনা করা হলো:

# আগে থেকেই জুতোর মধ্যে সামান্য কেকিং সোডা লাগিয়ে রাখুন। পরদিন জুতোর ওই অংশটি পরিষ্কার করে জুতা পরুন। দেখবেন দুর্গন্ধ দূর হয়ে গেছে। তবে চামড়ার জুতার ক্ষেত্রে কখনও কেকিং সোড়া ব্যবহার করবেন না।

# ব্যবহৃত মোজায় ২ টেবিল চামচ কেকিং সোডা রেখে বেঁধে জুতায় তা রেখে দিতে পারেন। পরদিন সেই মোজায় দেখবেন কোনো রকম গন্ধ নেই।

# জুতোর মধ্যে এক টুকরো ফেব্রিক সফটনার রেখে দিন আগের দিন রাতে। পরদিন সেটি বের করে তারপর জুতো পরুন। গন্ধ একেবারে উধাও হয়ে যাবে।

# স্নিকারস দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে আপনি মাঝে-মাঝেই সামান্য লবণ ছিটিয়ে দিন। এক টুকরো কাপড় কিংবা তুলা লবঙ্গ তেলে ভিজিয়ে জুতার মধ্যে রেখে দিতে হবে সারারাত। এতে করে জুতার দুর্গন্ধ দূর হয়ে যাবে।

# ইচ্ছে করলেই কয়েকটি লবঙ্গও ফেলে রাখতে পারেন। তাছাড়াও ব্যবহৃত টি ব্যাগও জুতার মধ্যে রেখে দিতে পারেন। ঘন্টাখানেক পর টি ব্যাগটি সরিয়ে ফেলে জুতো পরলে আর গন্ধ থাকবে না।

তথ্যসূত্র : জি নিউজ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...