The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ঘুমানোর পূর্বে যেসব খাবার খাওয়া মোটেও ঠিক নয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কিছু খাবার রয়েছে যা ঘুমানোর পূর্বে খেলে ঘুমের ব্যাঘাত সৃষ্টি হতে পারে। রাতে সঠিক সময় শোয়ার পরেও ঘুম না আসার মতো বিড়ম্বনাও হতে পারে।

টিভি দেখা, মোবাইল ফোনে চোখ রাখার মতো বিষয়গুলোর কারণে ঘুমে বিঘ্ন ঘটতে পারে। এছাড়াও কিছু খাবার রয়েছে যা রাতে শোবার পূর্বে খেলে ঘুমাতে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে।

পুষ্টিবিষয়ক এক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ভারতের ডায়াবেটিক প্রশিক্ষক, পুষ্টিবিদ এবং সুস্থতার প্রশিক্ষক অবনি কৌল রাতে ঘুমের সমস্যা করে এমন কয়েকটি খাবার সম্পর্কে জানিয়েছেন।

কার্বোহাইড্রেট

রাতে ঘুমানোর পূর্বে পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেট ধরনের খাবার খাওয়া মোটেও ঠিক নয়। এতে শরীরে অস্বস্তি দেখা দিতে পারে। রাতে ঘুমানোর পূর্বে পনিরের পাস্তা কিংবা এই ধরনের খাবার খেলে অস্বস্তিও দেখা দেয়। রাতের পরিবর্তে দিনে জটিল শর্করা এবং উচ্চ-চর্বি যুক্ত খাবার গ্রহণ করায় ভালো।

রসুন

রসুন খাবারের স্বাদ বাড়ায় সেটি আমাদের সকলের জানা। তবে রাতে ঘুমানোর পূর্বে রসুন খাওয়ার কারণে ঘুমে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। এটি তাপ উৎপাদনকারী ভেষজ হিসেবে অধিক পরিচিত। রসুনের রাসায়নিক উপাদান রাতে বুক জ্বালাপোড়ারও সৃষ্টি করতে পারে। রাতের খাবার তৈরিতে কেবল স্বাদ ও ঘ্রাণের জন্য খুব সামান্য পরিমাণ রসুন ব্যবহার করা উচিত।

চকলেট

রাতে ‘ডার্ক চকলেট’ খাওয়ার মতো আরামদায়ক আর কিছুই হতে পারে না। তবে এটি কিন্তু একটি ভুল ধারণা। এতে লুকায়িত ক্যাফেইন এবং চিনি ঘুমে কোনো রকম ইতিবাচক ভূমিকা রাখে না। চকলেট মজার হলেও এটি হরমোনে ভারসাম্যহীনতা বাড়িয়ে দেয়। যে কারণে সারারাত জাগ্রতও রাখে। তাই রাতে ঘুমানোর পূর্বে চকলেট না খাওয়াই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...