The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

‘ট্রিপল আর’ মুক্তির পূর্বেই ‘বাহুবলি টু’র রেকর্ড ভাঙছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ তেলেগু সিনেমার জনপ্রিয় দুই অভিনেতা জুনিয়র এনটিআর এবং রাম চরণ। ‘রুদ্রম রণম রুধিরাম’ বা ‘ট্রিপল আর’ সিনেমায় একসঙ্গে পর্দায় হাজির হয়েছেন তারা। এবার ‘ট্রিপল আর’ মুক্তির পূর্বেই ‘বাহুবলি টু’র রেকর্ড ভাঙছে।

‘ট্রিপল আর’ মুক্তির পূর্বেই ‘বাহুবলি টু’র রেকর্ড ভাঙছে 1

‘বাহুবলি’ সিনেমাখ্যাত এস এস রাজামৌলি পরিচালিত সিনেমার জন্য অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছেন দর্শকরা। বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমাটির জন্য পরিবেশকদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের প্রস্তাবও পেয়েছেন নির্মাতারা। এদিক থেকে বলা যায় ‘বাহুবলি টু’র রেকর্ড ভাঙছে এই সিনেমাটি।

এ সম্পর্কে একটি সূত্র বলেছে, ‘দক্ষিণের বিভিন্ন বক্স অফিস হতে সিনেমার স্বত্বের জন্য পরিবেশকদের কাছে থেকে ৩৪৮ কোটি রুপির প্রস্তাবও পেয়েছেন ‘ট্রিপল আর’ টিম। তেলেগু সিনেমার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় একটি চুক্তি হতে চলেছে। মুক্তির পূর্বেই ব্যবসার দিক থেকে এটি ‘বাহুবলি টু’ সিনেমার চেয়েও এগিয়ে রয়েছে! দক্ষিণের অঞ্চলগুলোতে বাহুবলি টু আয় করে ২১৫ কোটি রুপি।’

প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা যায়, দক্ষিণের বিভিন্ন বক্স অফিসে ‘ট্রিপল আর’ সিনেমার স্বত্ব বিক্রি হয়েছে: অন্ধ্রপ্রদেশে ১৬৫ কোটি রুপি, নিজাম ৭৫ কোটি রুপি, তামিলনাড়ু ৪৮ কোটি রুপি, কর্ণাটক ৪৫ কোটি রুপি ও কেরালায় ১৫ কোটি রুপি। সবমিলিয়ে ৩৪৮ কোটি রুপি। অর্থাৎ ‘বাহুবলি টু’ সিনেমার চেয়েও এগিয়ে রয়েছে!

জুনিয়র এনটিআর এবং রাম চরণ ছাড়াও সিনেমাটিতে অভিনয় করছেন বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাট এবং অভিনেতা অজয় দেবগন। এই সিনেমাটির হিন্দি সংস্করণের স্বত্ব নিয়েছে এএ ফিল্মস।

জানা যায়, ১০০ কোটি রুপিতে এই স্বত্ব বিক্রি করা হয়েছে। সবমিলিয়ে বিশ্বব্যাপী সিনেমাটির স্বত্ব বিক্রি বাবদ নির্মাতাদের আয় ৫০০ কোটি রুপি ছাড়িয়ে যাবে বলেও বক্স অফিস বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

‘ট্রিপল আর’ প্রযোজনা করছে ডিভিভি দানায়া। সিনেমাটির বাজেট হলো ৪০০ কোটি রুপি। আগামী ১৩ অক্টোবর মুক্তি পাবে ‘ট্রিপল আর’।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...