The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

চীনের বিরুদ্ধে কেনা ভারতের নতুন ড্রোনে কী ক্ষমতা?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ চীনের ওপর নজর রাখতে আমেরিকা থেকে ৩০টি MQ-9B ড্রোন কিনেছে ভারত। যে কারণে সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চীনের ছোট থেকে বড় সব পদক্ষেপের ওপরই নজর রাখতে পারবে ভারত।

চীনের বিরুদ্ধে কেনা ভারতের নতুন ড্রোনে কী ক্ষমতা? 1

প্রাথমিকভাবে ৬টি ড্রোন কেনার কথা। পরে আরও আসবে বাকি ২৪টি ড্রোন, যা আগামী ৩ বছর ধরে সরবরাহ করা হবে। তবে কী বৈশিষ্ট্য রয়েছে এসব ড্রোনে?

# ড্রোন বানানো কোম্পানি জেনারেল অ্যাটোমিক্সের দাবি হলো, এই ড্রোন একবারে টানা ২৭ ঘণ্টা পর্যন্ত উড়তে পারে।

# MQ-9 রিপার ড্রোন সবচেয়ে বেশি ৪৪৪.৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় উড়তে সক্ষম। এটি ৫০ হাজার ফিট উচু পর্যন্ত উড়তে সক্ষম।

# MQ-9 একসঙ্গে ১২টি মুভিং টার্গেটকে ট্র্যাক করতে সক্ষম। এটি একটি মিসাইল ছাড়ার ০.৩২ সেকেন্ডের মধ্যে দ্বিতীয় মিসাইল ছাড়তে সক্ষম।

# এই ড্রোন মোট ১ হাজার ৭৪৬ কিলো ওজন বহন করতে সক্ষম।

# এই ড্রোনে ফল্ট টলারেট ফ্লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম ও ট্রিপল রিডন্টেন্ট অ্যাবিয়োনিক্স সিস্টেমে কাজ করে থাকে।

# এটি মডিউলার ড্রোন। এতে খুব সহজেই পেলোডস কনফিগার করা যায়। এটি রিয়েল টাইমে পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তে ডেটা পাঠাতে সক্ষম।

# এটি ইলেক্ট্রো অপ্টিক্যাল ইনফ্রারেড (EO/IR), সার্ভিউল্যান্স র‍্যাডার, মাল্টিমোড মৈরিটাম সার্ভিলান্স র‍্যাডার ও ইলেকট্রনিক্স সাপোর্ট মেজর্স মতো বিষয়েও সক্ষম। এটি লেজার বোম পরিবহন করতে সক্ষম।

ইসরায়েলের হেরন ড্রোব এবং স্পাইক অ্যান্টি ট্যাঙ্ক মিসাইলকে আপগ্রেড করার কাজও চলছে। আপতকালীন পরিস্থিতির জন্য বরাদ্দ হতে এই এসব যুদ্ধাস্ত্র কেনা হচ্ছে। ভারতীয় সৈন্যরা এই সমস্ত জিনিস লাদাখ সেক্টরে ব্যবহার করবে। হেরন ড্রোন লাগাতার ২ দিনের বেশি উড়তে পারে। এই ড্রোন ১০ হাজার মিটার উঁচুতেও উড়তে পারে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...