The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বেড়ানোর জন্য আদর্শ স্থান নরসিংদী হেরিটেজ রিসোর্ট

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ চিত্তবিনোদনের উদ্দেশ্যে সময় কাটানোর জন্য রাজধানী ঢাকার আশেপাশের জেলায় অবস্থিত রিসোর্টগুলো বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এমনই একটি রিসোর্ট হলো নরসিংদী হেরিটেজ রিসোর্ট।

বেড়ানোর জন্য আদর্শ স্থান নরসিংদী হেরিটেজ রিসোর্ট 1

নরসিংদী জেলার মাধবদীর নওপারায় অবস্থিত তেমনই একটি রিসোর্টের নাম হলো হেরিটেজ রিসোর্ট। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ধরে ৪০ কিলোমিটার রাস্তা গেলেই এই রিসোর্টে পৌঁছানো যাবে। প্রায় ১৫০ বিঘা জায়গা জুড়ে নির্মিত হয়েছে এই হেরিটেজ রিসোর্ট। এখানে অতিথিদের অবকাশ যাপনের সুবিধার্থে রয়েছে আধুনিক কটেজ, ওয়াটার ভিলা, পুল ভিলা, সুইমিং পুল, ওয়েভ বিচ, জীম, স্পা, মাল্টি কুজিন রেস্টুরেন্ট, কনভেনশন সেন্টার, কনফারেন্স হলরুম, কালচারাল হলরুমসহ নানা ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনের সুব্যবস্থা।

মনোরম এক সবুজে মোড়ানো হেরিটেজ রিসোর্ট ঘিরে তৈরি লেকে রয়েছে বোট রাইডিং এবং ফিশিংয়ের ব্যবস্থা। এছাড়াও ছোট শিশু-কিশোরদের জন্য রয়েছে কিডস জোন, কিডস ওয়াটার জোন, ভার্চুয়াল রিয়েলিটি গেইমস জোন ও খেলার মাঠসহ নানা রকম আয়োজন। রিসোর্ট ঘুরে দেখতে চাইলে পাওয়া যাবে ক্লাব কার সুবিধাও। যদি প্রিয়জনের সঙ্গে পূর্ণিমা রাতে সময় কাটাতে চান তাহলে রিসোর্টের মুন সিন কর্নারে একান্তে জোছনার সৌন্দর্যও উপভোগ করতে পারবেন।

আপনার প্রশ্ন আসতে পারে হেরিটেজ রিসোর্টের খরচ কেমন? হেরিটেজ রিসোর্টে বৃহস্পতিবার হতে শনিবার এবং যে কোনো ছুটির দিনে ডে লং প্যাকেজের মূল্য হলো ২,৩০০ টাকা (জনপ্রতি)। রবি হতে বুধবার পর্যন্ত ডে লং প্যাকেজের মূল্য হলো (জনপ্রতি) ২,০০০ টাকা। ডে লং প্যাকেজের সঙ্গে রিসোর্টে প্রবেশ, ওয়েলকাম ড্রিংকস, সকালের নাস্তা, দুপুরের ব্যুফে লাঞ্চ, ইভিনিং স্ন্যাকস ও সুইমিং পুল সুবিধাও যুক্ত রয়েছে। বছরের বিভিন্ন সময় হেরিটেজ রিসোর্টে বিভিন্ন রকম ডিসকাউন্ট অফার চালু থাকে। অফার সম্পর্কিত আরও তথ্য জানতে চাইলে আপনি যোগাযোগ করুন +8801404-404854 ফোন নাম্বারে।

আর যদি আপনি রাত্রী যাপন করতে চান তাহলে হেরিটেজ রিসোর্টে রাত্রিযাপনের জন্য তালতলা ভিলেজ, ভিলা’স ও ওয়াটার কটেজ এই ৩টি ক্যাটাগরির রুম রয়েছে। প্রতিরাতের জন্য তালতলা ভিলেজ ক্যাটাগরির রুম নিতে হলে ভাড়া লাগবে ৮,৫০০ টাকা, প্রতিরাতের জন্য ভিলা’স ক্যাটাগরির রুম নিতে আপনার ভাড়া লাগবে ১১,০০০ টাকা ও ওয়াটার কটেজে রুম নিতে ভাড়া নিতে হলে লাগবে ১৩,০০০ টাকা। রুম ভাড়ার সঙ্গে ভ্যাট ও সার্ভিস চার্জ প্রযোজ্য।

আর বিস্তারিত জানতে হলে যোগাযোগ করুন:

বাগান বাড়ি, মাধবদী, নরসিংদী
ফোন : 09617181818
মোবাইল : 01404404853, 01733086314, 01755677149
ওয়েবসাইট : www.heritageresortbd.com
ফেইসবুক : www.facebook.com/heritageResortz

এই রিসোর্টটিতে ঢাকা হতে যাওয়া অত্যন্ত সহজ। নিজস্ব পরিবহণ বা ঢাকার মহাখালী, সায়েদাবাদ, কমলাপুর ও গুলিস্তান থেকে বিভিন্ন বাস সার্ভিস নরসিংদী যাওয়া-আসা করে। বনানী হতে পিপিএল সুপার ও গুলিস্থান হতে মেঘালয় লাক্সারি বাসে হেরিটেজ রিসোর্ট এন্ড স্পাতে আপনি যেতে পারবেন।

অপরদিকে রাজধানী ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে ষ্টেশন হতে আন্তঃনগর এগারসিন্দুর বা মহানগর ট্রেনে করেও নরসিংদী যেতে পারবেন। আবার ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী লোকাল ট্রেনেও নরসিংদী যাওয়া যায়। নরসিংদী রেলস্টেশন হতে বাস বা সিএনজিচালিত অটোরিকশায় চড়ে হেরিটেজ ইকো রিসোর্ট যাওয়া যাবে। লোকাল ট্রেনে ভ্রমণ করলে নরসিংদী স্টেশন ছাড়াও ঘোড়াশাল স্টেশনে নেমে সেখান থেকেও বাসে করে হেরিটেজ রিসোর্ট চলে যাওয়া যাবে।

আবার ঢাকা টু সিলেট মহাসড়কে কিশোরগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া এবং সিলেটগামী বাসে চড়েও হেরিটেজ রিসোর্টের কাছে নামতে পারবেন ইচ্ছে করলে। কাঁচপুর বা টঙ্গী থেকে কালীগঞ্জ, ঘোড়াশাল হয়ে নরসিংদী যেতে মাত্র এক থেকে দেড় ঘণ্টা সময় লাগবে। এভাবে আপনি সময় কাটাতে পারেন নরসিংদী হেরিটেজ রিসোর্টে।

তথ্যসূত্র: https://vromonguide.com

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...