The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

‘পদ্মাপুরাণ’ চলচ্চিত্রের ‘নোনা’ গান [ভিডিও]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সম্প্রতি প্রকাশ পেলো পরিচালক রাশিদ পলাশের চলচ্চিত্র ‘পদ্মাপুরাণ’ এর ‘নোনা’ গান। এই গানেই চমক দেখিয়েছে ‘পদ্মাপুরাণ’।

‘পদ্মাপুরাণ’ চলচ্চিত্রের ‘নোনা’ গান [ভিডিও] 1

গানের শুরুতেই অভিনেত্রী প্রসূন আজাদকে কিছু সাহসী সংলাপে পুরুষদের নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায়। যা নেটদুনিয়ায় ইতিমধ্যেই আলোচনার ঝড় তুলেছে। সেই সঙ্গে প্রসূনের নতুন লুক দর্শকদের বেশ খানিকটা চমকে দিয়েছে।

প্রকাশিত গানের শুরুতেই দেখা যায়, প্রসূন আজাদ মদ্য পান করছেন এবং বলছেন, ‘আমার থেকে ভালো পুরুষ মানুষ আর কেও চিনে না। কাঁটা তারের বেড়ার এইপার ও ওইপার দুই পার হলো আমার দুই রানের…। হিন্দুগো গরু মাংস খাওয়া নিষেধ, আর মুসলমানের শুয়োরের মাংস। তবে এই মাইয়া মাইনসের মাংস সব শালাতেই খায়। সব জায়গাতেই চলে, মেশিনের মতোই চলে।’ এমন সংলাপের পরই বেজে ওঠে ‘নোনা’ শিরোনামে গানটি।

সংলাপ নিয়ে কারও কারও মনে প্রশ্ন উঠলেও চরিত্রের প্রয়োজনে যা জরুরি ছিল বলে জানিয়েছেন এর নির্মাতা। প্রসূনও চরিত্রের সঙ্গে ঠিকঠাক মতো নিজেকে ফুটিয়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন। এই সিনেমার মধ্যদিয়ে অভিনেত্রী নিজেকে প্রকাশের সুযোগও পেয়েছেন। এমনটি দাবি করেছেন অভিনেত্রী।

চলচ্চিত্রটি মুক্তির বিষয়ে নির্মাতা রাশিদ পলাশ বলেছেন, ‘করোনার জন্য চলচ্চিত্রটি রিলিজে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। আমরা স্কুল কলেজ খোলার অপেক্ষাতেই ছিলাম। এখন সেটা খোলার আভাসও পেয়েছি, তাই সিনেমার গান দিয়ে সামনে উঠে আসা। আমার বিশ্বাস দর্শকরা ‘নোনা’ পছন্দ করবে। আসলে আমার কাছে সিনেমা নিছক বিনোদন নয়, এটি একটা বোধ, একটা বিশ্বাসও। নোনায় সে বোধই খুঁজে পাওয়া যাবে।’

প্রসূন আজাদ ছাড়াও ‘পদ্মাপুরাণ’ চলচ্চিত্রটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদিয়া মাহি, শম্পা রেজা, সুমিত সেনগুপ্ত, জয়রাজ, কায়েস চৌধুরী, সূচনা শিকদার, রেশমী, আশরাফুল আশিষ, হেদায়েত নান্নু, সাদিয়া তানজিনসহ প্রমুখ।

দেখুন ভিডিওটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...