The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কাওকে পছন্দ হলেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন এই নারী!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন কথা আমরা আগে কখনও শুনিনি। কারণ আমরা জানি পছন্দের মানুষকে দেখতে সবার ভালো লাগে। তাই বলে পছন্দের কাওকে দেখলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলা, এ আবার কেমন মানুষ!

কাওকে পছন্দ হলেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন এই নারী! 1

ভালো লাগার মানুষের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে যদি কেও অজ্ঞান হয়ে যায় তো পছন্দের মানুষের সামনে দাঁড়ানোই তখন দুষ্কর হয়ে পড়ে। যেমনটি ঘটেছে এক নারীর ক্ষেত্রে।

হয়তো এমন কথা শুনে আপনি অবাক হচ্ছেন। তবে বাস্তবে এমনই এক বিরল রোগের খোঁজ পাওয়া গেছে ইংল্যান্ডের এক নারীর মধ্যে। ওই নারী যদি ভালো লাগে এমন কোনো মানুষের মুখোমুখি হন, তাহলে সঙ্গে সঙ্গেই অজ্ঞান হয়ে যান। মানুষটির চোখে চোখ রাখলেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন ওই নারী!

এমন একটি খবর সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশের পর চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, এটি আসলে মস্তিষ্কের একটি বিরল রোগ। সেই কারণেই তিনি সচরাচর কোনো পুরুষের চোখে চোখই রাখেন না।

ওই নারীর নাম হলো ক্রিস্টি ব্রাউন। বিরল যে রোগে তিনি ভুগছেন তার নাম ক্যাটাপ্লেক্সি। ইংল্যান্ডের নর্থউইচের চেশায়ার অঞ্চলে বসবাস করেন ৩২ বছর বয়সী ক্রিস্টি ব্রাউন। তার দুটি সন্তানও রয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন যে, তিনি যে বিরল রোগে ভুগছেন তাতে রাগ, দুঃখ, ভয় এরকম নানা অনুভূতির জন্য মস্তিষ্কে কিছু বিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। ফলস্বরূপ তাৎক্ষণিক শরীরের কয়েকটি পেশি অসাড় হয়ে যায়। সেই জন্যই খানিকটা সময়ের জন্য জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন ক্রিস্টি ব্রাউন।

নিজের এমন এক পরিস্থিতি নিয়ে বেশ লজ্জায় থাকেন ক্রিস্টি ব্রাউন। তিনি সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, এটা খুবই লজ্জাজনক একটি বিষয়। আমি গিয়েছিলাম শপিং করতে। সেখানে একজনকে দেখে আমার খুব ভালো লাগে। তখন আমার পা কাঁপতে শুরু করে দেয়। আমার কাজিনকে ধরে না ফেললে হয়তো পড়েই যেতাম!

তবে শুধু পছন্দের কাওকে দেখলেই যে ক্রিস্টি ব্রাউনের এমনটি হয়, তা কিন্তু নয়। তিনি রেগে গেলে কিংবা ভয় পেলেও এমন ঘটতে পারে। উচ্চতাকেও বেশ ভয় পান ক্রিস্টি ব্রাউন। তাই উঁচু কোনও ছাদ কিংবা সিঁড়িতে উঠলেও তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন।

তাই পাবলিক প্লেসে গেলে নিজেকে যতোটা সম্ভব সংযত রাখার চেষ্টা করেন ক্রিস্টি ব্রাউন। বিব্রতকর অবস্থা এড়াতে বেশিরভাগ সময়ই তিনি মাথা নিচু করে থাকেন, যাতে কারও সঙ্গে তার কোনো রকম চোখাচোখি না হয়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...