The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আবারও শাহাদুজ্জামানের গল্প নিয়ে কাজ করছেন নির্মাতা নূর ইমরান মিঠু

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আবারও শাহাদুজ্জামানের গল্প নিয়ে কাজ করছেন নির্মাতা নূর ইমরান মিঠু। এতে থাকছেন বাঁধন-পার্থ। নূর ইমরান মিঠু নির্মাণ করবেন টেলিছবি ‘শহরে টুকরো রোদ’।

আবারও শাহাদুজ্জামানের গল্প নিয়ে কাজ করছেন নির্মাতা নূর ইমরান মিঠু 1

‘কমলা রকেট’ এর কথা নিশ্চয় মনে আছে? নূর ইমরান মিঠুর প্রথম চলচ্চিত্র ছিলো সেটি। ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ছবিটি মুক্তি পায় ২০১৮ সালে। দর্শক-সমালোচকের প্রশংসার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বহু চলচ্চিত্র উৎসবেও বেশ দাপট দেখিয়েছিলো ছবিটি। মুক্তির পরের বছর হতেই ছবিটি রয়েছে নেটফ্লিক্সে।

নির্মাণের পাশাপাশি এই চলচ্চিত্রটির গল্পও মুগ্ধ করে দেশ-বিদেশের দর্শকদের। এই চলচ্চিত্রের গল্পটি সেই সময় নির্মাতা নিয়েছিলেন বাংলা সাহিত্যের দাপুটে গল্পকার শাহাদুজ্জামানের কাছ থেকে। এই লেখকের দুটি গল্প ‘মৌলিক’ এবং ‘সাইপ্রাস’ নিয়েই মিঠু নির্মাণ করেছিলেন ‘কমলা রকেট’।

সেই আলোচিত চলচ্চিত্রের পর আবারও এই গল্পকার এবং নির্মাতা জুটি এক হতে চলেছেন। ডিজিটাল বিনোদন প্লাটফর্ম বঙ্গের নতুন পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আবারও মিঠুর নির্মাণে দেখা যাবে শাহাদুজ্জামানের গল্প।

বঙ্গ’র নতুন এই উদ্যোগটির নাম বব। অর্থ্যাৎ ‘বেজড অন বুক’। দেশের ৭ জন গল্পকারের লেখা গল্পকে টেলিছবিতে রূপদান করবেন ৭ নির্মাতা। তারই অংশ হিসেবে নূর ইমরান মিঠু নির্মাণ করবেন ‘শহরে টুকরো রোদ’।

শাহাদুজ্জামানের দুটি গল্প ‘উবার’ ও ‘টুকরো রোদের মতো খাম’ অবলম্বনে তৈরী হবে টেলিছবিটি। অনলাইন সংবাদ মাধ্যমকে নির্মাতা মিঠু জানান, ‘কমলা রকেট’ এর মতোই ‘শহরে টুকরো রোদ’ এর চিত্রনাট্য যৌথভাবে তৈরি করেছেন তিনি এবং লেখক শাহাদুজ্জামান।

ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখেই নির্মিতব্য টেলিছবিটির শুটিং শুরু করার কথা ছিলো ১২ এপ্রিল থেকে। কিন্তু লকডাউনের কারণে শুটিং বন্ধ থাকার কথা।

মিঠু জানিয়েছেন, তার নির্মিতব্য টেলিছবিটিতে দু’টি গল্প দেখানো হবে। একটির প্রধান চরিত্র অভিনয় করবেন আজমেরী হক বাঁধন এবং অপরটিতে সংগীতশিল্পী পার্থ বড়ুয়া অভিনয় করবেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...