The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ওপার বাংলার নির্বাচনে তারকাদের হার-জিত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় বড় দুই দলেই এবার তারকা প্রার্থীর ছড়াছড়ি। তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির হয়ে অনেক প্রার্থীই এবার ভোট করেন। কেও আবার তৃণমূল ছড়ে বিজেপিতেও যোগ দেন।

চিরঞ্জিত চক্রবর্তী

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে বারাসাত কেন্দ্র হতে পর পর ৩ বার জয়ী হয়ে হ্যাট্রিক করলেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক এবং তৃণমূল প্রার্থী চিরঞ্জিত চক্রবর্তী। ২৩ হাজারেরও বেশি ভোটে এবার জয়ী হয়েছেন এই তারকা প্রার্থী। চিরঞ্জিত এখন বারাসাত বিধানসভা আসনের তৃণমূলের বিধায়ক কিংবা এমএলএ।

লকেট চট্টোপাধ্যায়

চুঁচুড়ায় বিধানসভার ভোটে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী অজিত মজুমদারের কাছে হেরে গেছেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। রবিবার ভোটের ফলাফলে দেখা যায়, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী পেয়েছেন ৫৭ হাজার ৮৯১ ভোট। অপরদিকে লকেট চট্টোপাধ্যায় পেয়েছেন ৫৪ হাজার ৮২৯ ভোট। লকেট তার রাজনৈতিক জীবনের শুরুর দিকে তৃণমূলেই ছিলেন পরে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন।

পায়েল সরকার

বেহালা পূর্বতে তৃণমূলের প্রার্থী রত্না চ্যাটার্জির কাছে হেরেছেন বিজেপির প্রার্থী টালিউড অভিনেত্রী পায়েল সরকার। রবিবার ভোটের ফলাফলে দেখা যায়, এখানে তৃণমূলের প্রার্থী ১৩ হাজার ৯৭৭ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি পেয়েছেন ১২ হাজার ৬৪০ ভোট।

রাজ চক্রবর্তী

পরিচালক রাজ চক্রবর্তী তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে উত্তর চব্বিশ পরগণার বারাকপুরে এগিয়ে রয়েছেন। ভোট গণনার শুরু পর হতেই তার অবস্থান ভালো বলে জানা যায়।

রুদ্রনীল ঘোষ

ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে এবার বিজেপির প্রার্থী হয়ে বেশ আলোচনায় উঠে আসেন। তবে তৃণমূলের শক্তিশালী প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছে বিপুল ভোটে হেরে গিয়েছেন বিজেপির এই তারকা প্রার্থী। ফল গণনার শুরু হতেই পিছিয়ে ছিলেন রুদ্রনীল। বিজেপিতে যোগ দিয়ে সতীর্থদের ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন এই অভিনেতা। ইতিপূর্বে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। দল পাল্টেই গরম সুরে কথা বলা শুরু করেন তিনি। যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক সৃষ্টি হয়।

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়

কোলকাতার বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী নির্বাচনে লজ্জাজনকভাবে বিশাল ব্যবধানে হেরে যাচ্ছেন। রবিবার বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীর চেয়ে ১৫ হাজারেরও বেশি ব্যবধানে পিছিয়ে পড়েন বিজেপির এই অভিনেত্রী। অথচ নির্বাচনী প্রচারণায় শ্রাবন্তী প্রকাশ্যেই তৃণমূল কংগ্রেস এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বিভিন্নভাবে কটাক্ষ করেন।

অদিতি মুন্সি

রাজারহাট গোপালপুর বিধানসভা নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ভোটে দাঁড়িয়ে জিতলেন তৃণমূল কংগ্রেসের তারকা প্রার্থী অদিতি মুন্সি। এই আসনটিতে বিজেপির প্রার্থী ছিলেন শমীক ভট্টাচার্য। অপরদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়িয়েছিলেন সিপিআইএমের শুভজিৎ দাশগুপ্ত।

সায়নী ঘোষ

আসানসোল দক্ষিণের তৃণমূলের প্রার্থী অভিনেত্রী সায়নী ঘোষকে পরাজিত করে বিধানসভায় যোগ দিচ্ছেন বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পল। দুই সেলেবেটি প্রার্থীর লড়াইয়ে এই কেন্দ্র বলা যায় এবার হয়ে উঠেছিল নজরকাড়া। তৃণমূল যখন বিজেপি নেতাদের বহিরাগত বলে আক্রমণ শোনাচ্ছিল তখন অগ্নিমিত্রা বলেছিলেন যে, আসানসোলের মাটিতে সায়নীও এবার বহিরাগত। তিনিই ভূমিকন্যা, সেই প্রমাণ তিনি করেছেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...