The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ন্যানসীর নতুন গান ‘শুকনো মোমবাতি’র ব্যাপক সাড়া [ভিডিও]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রকাশ পেলো জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ন্যানসির নতুন গান ‘শুকনো মোমবাতি’। গানটি প্রকাশের পরই ব্যাপক সাড়া পড়েছে।

ন্যানসীর নতুন গান ‘শুকনো মোমবাতি’র ব্যাপক সাড়া [ভিডিও] 1

গানের কথা- ‘আমার শুকনো মোমবাতিই মেটাক তোমার ধার দেনা, আমার অন্ধ ঝাড়বাতি দেখাক তুমি কার চেনা’ -এই কথা ও সুরে গানটি সৃষ্টি করেছেন কবি এবং নির্মাতা পলিন কাউসার। ন্যানসীর কন্ঠে নতুন এই গানটির সঙ্গীতায়োজন করেছেন জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক রাজন সাহা।

গানটি প্রসঙ্গে রাজন সাহা বলেন, ‘গানের কথা এবং সুরে ভিন্নতা থাকায় দর্শক শ্রোতাদের মাঝে গানটি বেশ ইতিবাচক প্রভাবও ফেলতে শুরু করেছে, ন্যানসীর অনবদ্য কণ্ঠ শৈলীতে গানটি শ্রোতাদের দারুণ স্পর্শ করবে বলেই আশা করছি।’

এই বিষয়ে কণ্ঠশিল্পী ন্যানসী বলেন, ‘বেশ ভালো লেগেছে এই গানটি করতে পেরে, ব্যতিক্রমধর্মী একটা আমেজও রয়েছে এই গানের সুরে ও কথায় যা অনেকটাই ভীন্ন ধাঁচের। কবি এবং গীতিকার পলিনের জন্যে শুভ কামনা রইলো।’

গানের কথা এবং সুরের পাশাপাশি গানটির চিত্রায়ণও করেন পলিন কাউসার। তিনি বলেছেন, ‘আমি আমার গানকে একটি ম্যাডিটেটিভ প্যাটার্নে করার চেষ্টা করে থাকি, যেনো মানুষ তার নিজস্ব একটি রিদমের সঙ্গে একে মেশাতে পারে খুব সহজভাবে। গান আমার কাছে কেবল কথা এবং সুরের সহজ কোনো সিম্ফনিই নয় বরং তার চাইতে বেশি কিছু যা হয়তো একটি মিউজিক্যাল সায়েন্সও। ন্যানসী আপুর গায়কী এবং রাজন দা’র সঙ্গীতায়োজনে গানটি সত্যিই প্রাণ পেয়েছে।’

গানটির মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে মিউজিক কোম্পানি স্টুডিও জয়ার ইউটিউব চ্যানেলে।

দেখুন ভিডিও গানটি
https://www.youtube.com/watch?v=hVX_CGKZNN0

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...