The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কানাডার স্কুলে পাওয়া গেলো ২১৫ শিশুর লাশ!

A man stands with his son in front of a monument to the survivors of the former Kamloops Indian Residential School, after the remains of 215 children, some as young as three years old, were found at the site in Kamloops, British Columbia, Canada May 29, 2021. REUTERS/Dennis Owen

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কানাডার একটি বোর্ডিং স্কুল হতে পাওয়া গেছে ২১৫টি শিশুর দেহাবশেষ! স্কুলটি বিগত ৪০ বছর আগে বন্ধ হয়ে গেছে।

কানাডার স্কুলে পাওয়া গেলো ২১৫ শিশুর লাশ! 1

গত পরশু (২৮ মে) খবরটি সামনে উঠে আসায় স্তম্ভিত হয়ে পড়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তিনি এই ঘটনাকে হৃদয়বিদারক বলে উল্লেখ করেছেন।

ওই শিশুগুলো ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় কামলুপস ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের ছাত্র ছিল। ওই স্কুলটি ১৯৭৮ সালে বন্ধ হয়ে যায়। একজন স্থল অনুপ্রবেশকারী রাডার বিশেষজ্ঞের সহায়তায় বিষয়টি সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ অবগত হন।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষের তরফ হতে বলা হয়, এই মুহূর্তে ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাদের উত্তরের চেয়ে প্রশ্নই উঠছে বেশি। প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এক টুইট বার্তায় লিখেছেন যে, খবরটি আমার মনকে অত্যন্ত ভারাক্রান্ত করে তুলেছে। এই দুঃসহ সংবাদ আমাকে আমার দেশের অন্ধকার এবং লজ্জাজনক ইতিহাসের কথাই মনে করিয়ে দিচ্ছে।

জানা যায়, আগেই এই স্কুলের বিরুদ্ধে এই সংক্রান্ত কেলেঙ্কারির ঘটনা সামনে উঠে আসে। তখন একটি রিপোর্টও তৈরি করা হয়। রিপোর্টে জানানো হয়, আবাসিক শিশুদের ওপর অকথ্য শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতনও চালানো হতো। স্কুলের পড়ুয়ারা অপুষ্টিতে ভুগতো। সেই সময়- বিভিন্ন পর্বে যে লাখখানেক পড়ুয়া বিভিন্ন সময় এই বোর্ডিং স্কুলে পড়েছে, সকলেই এর শিকার হন এটিই ছিল কানাডার সবথেকে বৃহত্তম বোর্ডিং স্কুল। যার পরিচালনায় ছিলো অটোয়ার খ্রিস্টান গীর্জাগুলো।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে ২০০৮ সালেও প্রথম পর্যায়ে ৪ হাজার ১০০ শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। সেই সময় কানাডা সরকার এই ঘটনার জেরে ক্ষমাও চেয়ে নেন। এবার পাওয়া গেলো ২১৫ শিশুর পুঁতে ফেলা দেহাবশেষ।

তথ্যসূত্র : জিনিউজ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...