The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

রোনালদোর কাণ্ডে কোকাকোলার ক্ষতি ৩৪ হাজার কোটি টাকা!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে হাঙ্গেরিকে ৩-০ গোলে হারিয়ে দুর্দান্ত শুরু করেছে পর্তুগাল। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের অধিনায়ক ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো একাই করেছেন দুটি গোল, জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কারও।তবে তার এক কাণ্ডে কোকাকোলার ক্ষতি ৩৪ হাজার কোটি টাকা!

রোনালদোর কাণ্ডে কোকাকোলার ক্ষতি ৩৪ হাজার কোটি টাকা! 1

বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের অধিনায়ক ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো যতোই হিরো হোন না কেনো তার এই পারফরম্যান্সে অন্তত কোকাকোলা কোম্পানি মোটেও খুশি হতে পারছেন না। কারণ তারই কাণ্ডে কোকাকোলার ক্ষতি হয়ে গেছে ৩৪ হাজার কোটি টাকা!

এর কারণ হলো ম্যাচের আগেরদিন সংবাদ সম্মেলনে সবাইকে কোক খাওয়া থেকে নিরুৎসাহিত করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তার সামনের টেবিলে রাখা কোকের বোতল সরিয়ে সবার উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছেন কোকের বদলে পানি পান করার জন্য। সবমিলিয়ে মাত্র ৫-৭ সেকেন্ডের ছোট একটি কাজ করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

এতেই কি না নেমেছে কোকাকোলার বাজারে ব্যাপক ধস। ইতিমধ্যেই প্রায় ৪শ’ কোটি ডলার তথা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৩৪ হাজার কোটি টাকা খুইয়েছে কোকাকোলা কোম্পানি। তাদের শেয়ারবাজারের দরে নেমেছে এই বিশাল ধরনের ধস।

সোমবার রোনালদোর এই বোতল সরানোর কাণ্ডের আগে কোকাকোলার প্রতিটি শেয়ারের দাম ছিল ৫৬.১ ডলার। সেদিনই সংবাদ সম্মেলনে কোকের বোতল সরিয়ে আলোচনার জন্ম দেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এর ধাক্কা লাগে কোকাকোলার শেয়ার বাজারে।

অর্থনীতিভিত্তিক বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, রোনালদোর ওই বোতল সরানোর ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর কোকাকোলার প্রতিটি শেয়ারের মূল্য কমে দাঁড়িয়েছে ৫৫.২ ডলার। যার কারণে সামগ্রিকভাবে তাদের শেয়ারের দাম কমেছে ১.৬ শতাংশ এবং মার্কেট ভ্যালুও কমে গেছে ৪০০ কোটি ডলার।

অবশ্য কোকাকোলা কোম্পানি জানিয়েছে, শুরুতে একটা ধাক্কা লাগলেও, ধীরে ধীরে আবার বাড়তে শুরু করেছে তাদের শেয়ারের দাম।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...